দেশজুড়ে

সরিষাবাড়ীতে শিশুকে বলৎকার করার অভিযোগ

  • 2
    Shares

তৌকির আহাম্মেদ হাসু, সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধিঃ জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে শিশু বলৎকারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল বুধবার দুপুরে সরিষাবাড়ী পৌর সভার মাইজবাড়ী (রেলওয়ে কলোনী)এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।শিশু বলৎকারকারীকে স্থানীয় জনতা আটক করে সরিষাবাড়ী থানা পুলিশে সোপর্দ করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় এবং শিশুর পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে,সরিষাবাড়ী পৌর সভার মাইজবাড়ী (রেলওয়ে কলোনীর) গ্রামের ইমাম ওমর ফারুক এর ছেলে মোয়াদ (২)বছর বাহিরে খেলা করছিল। পাশের বাসার আবুল হোসেন (৬২)
কোলে নিয়ে তার ঘরে নিয়ে যায়। এ সময় আবুল হোসেন এর বাড়ীতে কেউ না থাকার সুযোগে তার ঘরে নিয়ে শিশুটিকে বলৎকার করলে শিশুটি চিৎকার দেয়। শিশুটির চিৎকারে তার মা পাশের ঘর থেকে দৌড়ে গিয়ে আবুল
হোসেনকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পায়।

এ বিষয়টি আশপাশের ছডিয়ে পড়লে স্থানীয়রা আবুল হোসেনকে তার ঘরে বেধে রাখে। পরে শিশুটিকে সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে প্রেরন করে।

খবর পেয়ে সরিষাবাড়ী থানার এস আই আমিনুর রহমান ও আরিফুল ইসলাম সহ সঙ্গীয় পুলিশ সদস্যরা শিশু বলৎকারকারীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করবেন বলে শিশুটির মা বিলকিছ বেগম সাংবাদিকদের জানান। আটক আবুল হোসেন সরিষাবাড়ী পৌর সভার মাইজবাড়ী (রেলওয়ে কলোনী)এলাকায় ২য় স্ত্রী আমেনা কে নিয়ে দীর্ঘ দিন যাবৎ বসবাস করে আসছে। সে মৃত মোসলেম উদ্দিনের ছেলে বলে জানা গেছে।

আটক বলৎকার কারী আবুল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমি অপরাধ করেছি, আমার ক্ষমা নাই। এ ব্যাপারে শিশুর মা বিলকিছ বেগম শিশু পুত্রকে বলৎকার করার ঘটনা সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমি এর বিচার চাই।

জানতে চাইলে সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রের কর্তব্যরত আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ সাহেদুর রহমান জানান, শিশুটি বলৎকার হয়েছে কিনা তা পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে
পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া কিছু ধারনা করা যাচ্ছে না।

সরিষাবাড়ী থানা অফিসার ইনচার্জ আবু মোঃ ফজলুল করীম জানান, শিশু বলৎকারকারীকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহনে মামলার প্রস্তুতি চলছে।


  • 2
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button