আন্তর্জাতিক

সীমান্ত বিরোধ: ‘সত্যের জয়’ নীতির বিরুদ্ধে না যেতে ভারতকে নেপাল প্রধানমন্ত্রীর হুঁশিয়ারি


ভারতকে ধমক দিয়ে নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলি মঙ্গলবার বলেছেন যে ‘সত্যমেভা জয়তি’ (সত্যের জয়) নীতির বাইরে যাওয়া প্রতিবেশী দেশটির উচিত হবে না। লিপুলেখ, কালাপানি ও লিম্পিয়াধুরা ভূখণ্ড নিয়ে ভারত ও নেপালের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টির প্রেক্ষাপটে নেপালের প্রধানমন্ত্রী এই বক্তব্য দিলেন। ‘সত্যমেভা জয়তি’ নীতিবাক্যটি ভারতের রাষ্ট্রীয় প্রতীক চার মুখওয়ালা সিংহের নিচে মুদ্রিত রয়েছে।

পার্লামেন্টে এক সভায় বক্তৃতাকালে প্রধানমন্ত্রী ওলি আরো বলেন, ঐতিহাসিক ভুল বোঝাবুঝির অবসানের ধারণা ভারতের সাথে আমাদের বন্ধুত্ব গভীর করবে। অচলাবস্থার মধ্যে ওলি নেপালের অবস্থান পরিষ্কার করে বলেন যে বিষয়টি নিয়ে চীনের সাথেও যোগাযোগ করা হয়েছে।

নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রদীপ কুমার গিওয়ালি সোমবার বলেন, ভূমি ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় শিগগিরই নতুন রাজনৈতিক মানচিত্র প্রকাশ করবে। এতে লিপুলেখ, কালাপানি ও লিম্পিয়াধুরা অন্তর্ভুক্ত থাকবে বলেও জানান তিনি।

ভারত ও নেপালের মধ্যে ১,৮০০ কিলোমিটার উন্মুক্ত সীমানা রয়েছে। নেপাল বলছে যে তারা অব্যাহতভাবে ১৮১৬ সালের সুইগুলি চুক্তি অনুযায়ী কাজ করছে। এতে দুই দেশের সীমান্ত হিসেবে কালি নদীকে ধরা হয়েছে। আর এর ফলে লিপুলেখ, কালাপানি ও লিম্পিয়াধুরা নেপালের অংশ।

১৯৬২ সালে চীন-ভারত যুদ্ধের পর ভারতীয় সৈন্যরা ওই অঞ্চলে প্রবেশ করে।সম্প্রতি ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং উত্তরখন্ডের সঙ্গে লিপুলেখ পাসকে যুক্ত করেন চীনের তিব্বতে কৈলাশ মানসসরোবরে যাওয়ার রুটের সাথে। নেপাল এই পদক্ষেপের প্রতিবাদ করে।সাউথ এশিয়ান মনিটর


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button