বানরের শরীরে করোনার টিকায় সাফল্য!

0
19

বানরের শরীরে করোনার টিকা প্রয়োগ করে সফল হয়েছে বলে দাবি করেছে ভারতীয় একটি প্রতিষ্ঠান। ‘ভারত বায়োটেক’ নামে ওই সংস্থা শনিবার ঘোষণা করে লাইভ ‘ভাইরাল চ্যালেঞ্জ মোডে’ তারা এই সাফল্য পেয়েছে।

সংস্থাটির দাবি, যেসব প্রাণীকে ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে তাদের মধ্যে ইমিউনিটি বা প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হয়েছে। ম্যাকাকা মুলাটা নামে এক প্রজাতির বানরের শরীরে এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়।

সংস্থাটি জানায়, প্রথমে ২০টি বানরকে চারটি গ্রুপে ভাগ করা হয়। একটি গ্রুপকে দেয়া হয় প্লেসবো। বাকি তিনটি গ্রুপে তিনটি আলাদা ভ্যাকসিন দেয়া হয়। ১৪ দিন পরে দেয়া হয় সেকেন্ড ডোজ। এরপর তাদের শরীরে SARS-CoV-2 বা করোনাভাইরাস প্রয়োগ করলে দেখা যায় তারা প্রতিরোধ করতে সক্ষম।

লালারস সংগ্রহ করে দেখা যায় তারা করোনা আক্রান্ত হয়নি। ভাইরাস তাদের শরীরে প্রবেশ করানোর সাত দিন পরও আক্রান্ত হয়নি তারা।

এদিকে ভ্যাকসিনের ট্রায়াল বন্ধ করে দিয়েছে অক্সফোরর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও অ্যাস্ট্রাজেনেকা। যে স্বেচ্ছাসেবকদের ওপর হিউম্যান ট্রায়াল চলছিল, তাদের মধ্যে একজনের শারীরিক পরিস্থিতিতে কিছুটা সন্দেহজনক পার্থক্য নজরে এসেছে। সেই বিষয়ের ওপর প্রাথমিকভাবে নজরদারি করতেই ট্রায়াল বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে অক্সফোর্ড।

ওই স্বেচ্ছাসেবকের শরীরে কী ধরনের পরিবর্তন এসেছে বা কী সমস্যা তৈরি হয়েছে, সে বিষয়ে কোনও পক্ষই মুখ খোলেনি। তবে ওই স্বেচ্ছাসেবক সুস্থ হচ্ছেন বলে সূত্রের খবর।

এদিকে ট্রায়াল বন্ধ করে দেয়ায় বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ভ্যাকসিনের সম্ভাব্য প্রক্রিয়া। কারণ এতে অ্যাস্ট্রাজেনেকার অন্যান্য ভ্যাকসিনের ট্রায়ালেও প্রভাব পড়তে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।