গ্যাস দুর্ঘটনা প্রতিরোধে সচেতনতা বিষয়ক সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি

0
22

লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, সচেতনতার অভাবে প্রায়শঃই প্রাকৃতিক গ্যাস/বায়ু গ্যাস জানিত অগ্নি দুর্ঘটনা/বিশ্ফোরণে জনমালের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে। এ ধরণের দুর্ঘটনা সকলকে নিম্নরূপ সতর্কতা অবলম্বনে অনুরোধ করা যাচ্ছে।

বায়োগ্যাস উৎপন্ন হয় যাহা অগ্নি দুর্ঘটনা ও বিস্ফোরণের অন্যতম কারণ। আপনার বাড়ির সেইফটি ট্যাঙ্ক/সামনের রাস্তায় ম্যানহোলের ঢাকনাটিতে পর্যাপ্ত বায়ু চলাচলের ব্যবস্থা আছে কিনা সর্তকতার সহিত পর্যবেক্ষণে রাখুন। বিশেষ করে স্যুয়ারেজ লাইনের সাথে সরাসরি সংযুক্ত টয়লেটের পাইপের মাধ্যমে স্যুয়ারেজ বর্জ্যে উৎপাদিত বায়োগ্যাস আবদ্ধ ঘরে জমা হতে পায়ে। আবদ্ধ এলাকা/ঘরের ভিতর তিতাস গ্যাসের লাইনে লিকেজ না থাকলেও শুধুমাত্র স্যুয়ারেজ লাইনের উৎপাদিত বায়াগ্যাসের সংস্পর্শে বৈদ্যুতিক স্পার্ক/দিয়াশলাইয়ের অগ্নি স্ফুলিঙ্গ অথবা চাপ ও তাপের প্রভাবে বড় ধরনের বিক্ষোরণ সৃষ্টি হয়ে জানমালের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে।

*বাসা-বাড়িতে/আবদ্ধ এলাকায় প্রথম অবস্থাতেই গ্যাসের চুলা না জ্বালিয়ে কিংবা বৈদ্যুতিক বাতি/ফ্যান না চালিয়ে বাড়ি/আবদ্ধ স্থানের চলাচলের পথ দরজা জানালা খুলে দিয়ে স্বাভাবিক বায়ু চলাচলের ব্যবস্থা করতে হবে।

* চুলা জ্বালানোর পূর্বে চুলার নব/বাটন/ হুসপাইপ পিতলের চাবি ইত্যাদিতে কোন গ্যাস লিকেজ আছে কি-না পরীক্ষা করুন।

* বাসা বাড়িতে লিকেজ পরিলক্ষিত হলে রাইজারের চাবি বন্ধ করে দিন এবং আগুন জ্বালানো থেকে বিরত থাকুন। প্রয়োজনে দক্ষ মিস্ত্রি দিয়ে লিকেজ মেরামতের ব্যবস্থা করুন। লিকেজ মেরামত নিশ্চিত হয়েছে কিনা সাবান পানি দ্বারা পরীক্ষা করুন।

* চুলা জ্বালানোর কমপক্ষে ১৫/২০ মিনিট পূর্বে রান্না ঘরের দরজা জানালা খুলে দিয়ে বায়ু চলাচল নিশ্চিত করুন।

* রান্না শেষে গ্যাসের চুলা যথাযথভাবে বন্ধ হয়েছে কি-না নিশ্চিত হউন।

* ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় তিতাস গ্যাসের সার্ভিস সংযোগের লক উইং কক, রেগুলেটর, মিটার অথবা সংযোগস্থল সমূহে গ্যাস লিকেজ পরিলক্ষিত হলে তাৎক্ষনিক ভাবে কোম্পানির জরুরি গ্যাস নিয়ন্ত্রন কেন্দ্রের নিচের নম্বরে খবর দিন।

জরুরী গ্যাস নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র-উত্তর

গুলশান-১, ঢাকা-১২১২

ফোনঃ ৫৫০৪৫১১৩, ৫৫০৪৫১১৪

মোবাইল: ০১৯৫৫৫০০৪৯৭ ও ০১৯৫৫৫০০৪৯৮

জরুরী গ্যাস নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র-দক্ষিণ

মতিঝিল, ঢাকা-১০০০

ফোনঃ ৯৫৬৩৬৬৭, ৯৫৬৩৬৬৮

মোবাইল: ০১৯৫৫৫০০৪৯৯ ও ০১৯৫৫৫০০৫০০

* আপনার আঙিনায় স্থাপিত গ্যাসের রাইজারটি সর্বদা উন্মুক্ত পরিবেশে রাখুন। গ্যাস রাইজারের সন্নিকটে গ্যাসের চুলা ও কোন দাহ্য পদার্থ কিংবা বৈদ্যুতিক লাইন স্থাপন করা থেকে বিরত থাকুন। অবৈধ গ্যাস সংযোগ গ্রহণ/ব্যবহার হতে বিরত থাকুন। অবৈধ গ্যাস সংযোগ নির্মাণের মালামাল ব্যবহার করা হয় যা গ্যাস লিকেজ/বিস্ফোরণ/অগ্নিকান্ডের মত দূর্ঘটনার কারণ।

* অকারণে গ্যাসের চুলা জ্বালিয়ে রাখবেন না।

* প্রতিদিন ঘুমের আগে আপনার গ্যাসের চুলাটি বন্ধ করা হয়েছে কি-না নিশ্চিত হউন।

* আপনার এলাকায় বিভিন্ন রাস্তায় স্থাপিত তিতাস গ্যাস টি, এন্ড ডি, কোম্পানির বিভিন্ন সাইজের পাইপ লাইন-এ গ্যাস লিকেজ পরিলক্ষিত হলে অথবা আপনার দৃষ্টিগোচর হলে তা তাৎক্ষনিকভাবে নিম্নের নম্বরে খবর নিন।

কল সেন্টার (সকাল ৮ ঘটিকা হতে রাত ৮ ঘটিকা পর্যন্ত)

০৯৬১২৩১৬৪৯৬