ধামরাই উপজেলায় গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, স্বামী আটক

0
17

রনজিত কুমার পাল (বাবু), ঢাকা জেলা প্রতিনিধি : ঢাকার ধামরাই উপজেলার যাদবপুর ইউনিয়নে নিজ বাড়ির শয়ণ কক্ষ থেকে জুলেখা আক্তার শিখা (২৫) নামে এক গৃহ বধূর গলায় ওড়না পেঁচানো মরদেহ উদ্ধার করেছে ধামরাই থানা পুলিশ।

এ’ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহত জুলেখা আক্তার শিখার স্বামী মেহেদী হাসানকে আটক করেছে পুলিশ।
শুক্রবার (১১ই সেপ্টেম্বর)-সকালে ধামরাই উপজেলার যাদবপুর ইউনিয়নের উত্তরপাড়া গ্রামের ওই গৃহবধূর শ্বশুর বাড়ি থেকে এ’মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত জুলেখা আক্তার শিখা ধামরাই উপজেলার যাদবপুর ইউনিয়ন এর উত্তরপাড়া গ্রামের মেহেদী হাসানের স্ত্রী। নিহত শিখার বাপের বাড়ি সাভার উপজেলার আশুলিয়া থানাধীন শিমুলিয়া ইউনিয়নের গোয়াল বাড়ি এলাকায়।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়- গত বৃহস্পতিবার রাত ২টার দিকে হতাৎ ঘুম ভেঙে যায় স্বামী মেহেদী হাসানের। এ’সময় স্ত্রী জুলেখা আক্তার শিখার গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় কক্ষের ভিতরে ফাইল কেবিনেটের সাথে হেলান দিয়ে বসে থাকতে দেখে মেহেদী হাসানের ডাক-চিৎকারে ছুটে আসেন বাড়ির অন্য সদস্যরা গৃহবধূকে মৃত দেখতে পায়। খবর পেয়ে ধামরাই থানা পুলিশ সকাল ৭ ঘটিকার সময় নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে।

এ’বিষয়ে ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ আজাহারুল ইসলাম বলেন- নিহত গৃহবধূ জুলেখা আক্তার শিখার পরিবারের অভিযোগ থাকায় নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে পোষ্টমর্টেন করার জন্য রাজধানী ঢাকার সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ’ঘটনায় নিহতের স্বামী মেহেদী হাসানকে আটক করা হয়েছে। এ’ঘটনায় ধামরাই থানায় মামলা দায়ের করার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।