ডান হাত ও ডান পায়ের অবশ অংশে সাড়া নেই ইউএনও ওয়াহিদার

0
19

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানমের শারীরিক অবস্থার অনেকটা উন্নতি হয়েছে। তিনি স্বাভাবিক কথা বলতে পারছেন।

তবে প্যারালাইজড হয়ে যাওয়া ডান পাশের অংশটা আগের মতোই আছে। ডান হাত ও ডান পায়ে কোনো সাড়া নেই। এ নিয়ে কিছুটা উৎকণ্ঠায় রয়েছেন চিকিৎসকরা।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর জাতীয় নিউরোসায়েন্স ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওয়াহিদা খানমের চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের সদস্য সচিব ও হাসপাতালের যুগ্ম পরিচালক অধ্যাপক ডা. বদরুল আলম দেশ রূপান্তরকে এসব তথ্য জানান।

গত ২ সেপ্টেম্বর রাতে ঘোড়াঘাটের ইউএনওর সরকারি বাসভবনে ঢুকে ওয়াহিদা খানম ও তার বাবার ওপর হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। গুরুতর অবস্থায় তাকে প্রথমে রংপুরের একটি হাসপাতালের আইসিইউতে রাখা হয়। পরদিন দুপুরে তাকে বিমানবাহিনীর একটি হেলিকপ্টারে ঢাকায় আনা হয়। ওইদিন রাতেই জাতীয় নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে সফলভাবে তার অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়।

এই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক বলেন, ওয়াহিদা খানমের শারীরিক অবস্থা আগের চেয়ে একটু ভালো। বেশ কিছু প্যারামিটার (ভালোর নির্দেশিকা) ইতিবাচক। এর মধ্যে জ্ঞানের মাত্রা (কনশাসনেস লেভেল) আগের চেয়ে ভালো। কোনো কিছু বললে উনি সাড়া দেন। তার স্বামীর সঙ্গেও কথা বলছেন।

ডান হাতে অনুভূতি না পাওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, আমরা আশা করি ফিজিওথেরাপিতে তার উন্নতি হবে, তবে কবে কতটুকু হবে, সেটা বলা কঠিন। তবে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি । যাতে তার ডান পাশে অনুভূতি ফিরে আসে।

এক প্রশ্নের জবাবে ডা. বদরুল অলম বলেন, আমরা তাকে বেডে দেওয়ার কথা চিন্তা-ভাবনা করছি। তিনি এখন এইচডিইউতেই রয়েছে। শনিবার পর্যন্ত এখানেই থাকবেন। ওইদিন আমাদের বোর্ড মিটিং রয়েছে, সেখানেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে তাকে বেডে পাঠানো হবে কি-না।