দেশজুড়ে

শ্রীনগরে কামারগাঁও থেকে আল-আমিন পর্যন্ত সড়কের বেহাল দশা

  • 663
    Shares

শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি: শ্রীনগর উপজেলার কামারগাঁও বাজার থেকে আল-আমিন বাজার পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার রাস্তা দীর্ঘদিন যাবত সংস্কার কাজ বন্ধ থাকায় ভোগান্তি বেড়েছে। খানাখন্দে ভরে বড়বড় গর্তে পরিণত হয়েছে সড়কটি। এতে করে যাবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সড়কটির শ্রীনগর অংশে বন্যায় পানির তোড়ে ভাঙাচূড়া অংশগুলোতে জিও ব্যাগের পাশাপাশি ঢালাই করে দ্রুত মেরামতের কাজ করছে সড়ক কর্তৃপক্ষ। জানা যায়, প্রায় বছর আগে পুরো সড়কটির সংস্কার কাজ সম্পন্ন হলেও ভাগ্যকুলের কামারগাঁও বাজার এলাকা থেকে আল-আমিন বাজার পর্যন্ত দেড় কিলোমিটার রাস্তার সংস্কার কাজে স্থানীয় বসতিদের সাথে বিরোধ থাকার কারণে কাজ বন্ধ থাকে। এর পর থেকে এখানে আর সংস্কার কাজ করতে পারেনি সড়ক ও জনপথ কর্তৃপক্ষ।

দেখা গেছে ব্যস্ততম আন্ত:সড়কটির কামারগাঁও ও আল-আমিন অংশের অবস্থা এতটাই নাজুক যে সামান্য বৃষ্টি হলে এর পরিস্থিতি আরো ভঙ্কর হয়ে হয়ে উঠে। রাস্তার গর্তে প্রায় হাঁটু পানি জমে থাকতে দেখা যায়। এতে করে কাঁদাযুক্ত ও পিচ্ছিল রাস্তায় প্রায় সময়েই যানবাহন দুর্ঘটনার স্বীকার হচ্ছে। বেহাল হয়ে পরে থাকার বিষয়ে জানা যায়, এই দেড় কিলোমিটার রাস্তার মধ্যে প্রায় ১০/১২টি ঝুঁকিপূর্ণ বাঁক রয়েছে। বাঁকগুলো সরলিকরণের জন্য জমি অধিগ্রহণের কাজ সম্পন্ন হয়নি। এ কারণেই করেই সংস্কার কাজ বন্ধ হয়ে আছে।

গত আগস্টের শেষের দিকে সড়ক ও জনপথ শ্রীনগর অফিসের সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছিলেন জমি অধিগ্রহনের কাজ প্রায় শেষের দিকে। কিছু দিনের মধ্যেই ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে চেক বিতরণ করা সম্ভব হবে। স্থানীয়রা জানায়, কামারগাঁও বাজার থেকে তালুকদার বাড়ি পর্যন্ত সড়কের সংস্কার কাজ করা খুবই প্রয়োজন। এটুকু বেহাল রাস্তায় প্রতিদিন হাজার হাজার যাতায়াতকারী চরম ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেন। এই অবস্থায় রাস্তায় বৃষ্টির পানি জমে গর্তগুলো মৃত্যু ফাঁদে পরিণত হয়ে উঠে। মানুষের দুর্ভোগ লাঘবে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সুদৃষ্টি কামনা করেন এলাকাবাসী।

এব্যাপারে সড়ক ও জনপথ উপ প্রকৌশলী (শ্রীনগর উপ-বিভাগ মুন্সীগঞ্জ) মো. তৌহিদুল আলম জানান, বন্যায় বিধ্বস্ত ভাগ্যকুল-দোহার সড়কের শ্রীনগরের বিভিন্ন অংশে মেরামতে কাজ ইতিমধ্যেই শেষ হয়েছে। ভাড়ি যানবাহন চলাচলের নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নেয়া হয়েছে। তবে এই সড়কের কামারগাঁও বাজার থেকে আল-আমিন বাজারের তালুকদার বাড়ি পর্যন্ত সামান্য অংশে ভূমি অধিগ্রহন চূড়ান্ত স্টেজে রয়েছে। আর সড়কটির কয়েকটি বাঁকে জমির মালিকরা ভাঁধা দেওয়ায় একটু সমস্যা হচ্ছে। আমরা স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে কয়েকদফা এ ব্যাপারে বৈঠক করেছি। আশা করছি শীঘ্রই এ সমস্যার সমাধান হবে।


  • 663
    Shares

Related Articles