লাইফস্টাইল

করোনাকালে সুস্থ থাকতে যে কাজগুলো করবেন

করোনাভাইরাস আতঙ্ক কাটেনি এখনও। কবে নাগাদ পৃথিবী পুরোপুরি করোনামুক্ত হবে, তা জানেন না কেউ। এই অসুখ থেকে বাঁচতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি থাকা প্রয়োজন। তাই আপনার সচেতনতাই পারে করোনা থেকে দূরে রাখতে। নিয়ম মেনে চলা, স্বাস্থ্যকর অভ্যাস গড়ে তোলা ও মানসিক সুস্থতা- এই তিন জিনিস এখন সবচেয়ে জরুরি। করোনা থেকে বাঁচতে কিছু কাজের দিকে মনোযোগ দেয়ার কথা প্রকাশ করেছে এনডিটিভি।

  • প্রকৃতির কাছাকাছি থাকুন
    মন খারাপ কাটাতে অনেকেই প্রকৃতির মাঝে হারিয়ে যেতে চায়। ঘন সবুজের দিকে তাকিয়ে থাকলে মন তো ভালো হয়ই, উপকার মেলে দৃষ্টিশক্তিরও। তবে এখন যদি বাইরে ঘোরাফেরা সম্ভব না হয় তবে ঘরেই কিছু গাছ লাগানোর ব্যবস্থা করুন। এতে যে শুধু ঘর দেখতে সুন্দর লাগবে তা নয়, সতেজ নিঃশ্বাসও নিতে পারবেন।
  • আলো-বাতাস চলাচলের ব্যবস্থা
    ঘরে স্বাস্থ্যকর পরিবেশ বজায় রাখার জন্য আলো-বাতাসের নির্বিঘ্ন চলাচলের প্রয়োজন। ঘরের পরিবেশ সতেজ রাখতে চাইলে লাগাতে পারেন এয়ার পিউরিফায়ার। যা আপনার ঘরের বাতাসকে বিশুদ্ধ রাখতে সাহায্য করবে। ঘরে ধুলো-ময়লা জমতে দেবেন না একদমই।
  • স্বাস্থ্যকর খাবার খান
    এই সময়ে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে আপনাকে সবচেয়ে বেশি সাহায্য করবে স্বাস্থ্যকর খাবার। তাই নিয়মিত পাতে রাখুন স্বাস্থ্যকর সব খাবার। দিনে অন্তত একবেলা সালাদ খান। সেইসঙ্গে স্বাস্থ্যকর প্রাকৃতিক পানীয় পান করুন। সঠিক মাত্রায় সুষম খাবার খেলে তা শরীর সুস্থ রাখবে।
  • গায়ে মাখুন প্রাকৃতিক আলো
    বাড়িতে যেন স্যাঁতসেঁতে পরিবেশ তৈরি না হয়। ঘরে যেন যথেষ্ট আলো-বাতাস যাতে চলাচল করতে পারে, তার ব্যবস্থা করুন। প্রতিদিন অন্তত পনের মিনিট গায়ে রোদ লাগান। এর কারণ হলো, রোদ ভিটামিন ডি এর প্রধান উৎস। ঘরের পরিবেশ ঝকঝকে থাকলে আপনার মনও ভালো থাকবে।
  • বিশুদ্ধ পানি পান
    প্রতিদিন যে পানি পান করছেন, তা আসলেই বিশুদ্ধ কি-না সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। কোনো সন্দেহ থাকলে প্রয়োজনে মিনিট দশেক ফুটিয়ে তারপর ঠান্ডা করে সেই পানি পান করুন। গোসল ও অন্যান্য কাজে ব্যবহৃত পানি যেন পরিষ্কার হয়, সেদিকেও লক্ষ করুন।
  • বাড়ির জিনিসপত্র পরিষ্কার
    ঘর তো পরিষ্কার রাখবেনই, সেইসঙ্গে পরিষ্কার রাখুন ঘরের সব আসবাবও। ধুলো জমতে দেবেন না। নিয়মিত আসবাব মুছুন। কারণ ধুলেঅ জমলে সেখানে সহজেই রোগ-জীবাণু আস্তানা গড়তে পারে। চারপাশ যত পরিষ্কার রাখবেন, ততই রোগ-জীবাণু থেকে দূরে থাকবেন।

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button