রাত ১০:১৮ সোমবার ১৮ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং

বাবরি মসজিদের রায় দেয়া ৫ বিচারপতির পরিচয়

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : নভেম্বর ১০, ২০১৯ , ৬:৩৬ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : আন্তর্জাতিক
পোস্টটি শেয়ার করুন

ভারতের অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ মামলা নিয়ে দীর্ঘ বিতর্কের অবসান হয়েছে শনিবার (৯ নভেম্বর)। এ দিন ভারতের সুপ্রিমকোর্টের প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চ অযোধ্যা মামলার রায় ঘোষণা করেছেন।

রায়ে বাবরি মসজিদ যে জায়গায় ছিল সেটি রাম মন্দিরের জন্য বরাদ্দ ও বাবরি মসজিদ নির্মাণের জন্য অন্যত্র ৫ একর জমি বরাদ্দের নির্দেশ দেয়া হয়।

সুপ্রিমকোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ (৬৪) ছাড়াও এ বেঞ্চে ছিলেন বিচারপতি শরদ অরবিন্দ বোবদে (৬৩), বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড় (৫৯), বিচারপতি অশোক ভূষণ (৬৩) এবং বিচারপতি আবদুল নাজির (৬১)।

বিচারপতি রঞ্জন গগৈ : রঞ্জন গগৈ ভারতের ৪৬তম প্রধান বিচারপতি। তিনি আসামের বাসিন্দা। ১৯৭৮ সালে গুয়াহাটি হাইকোর্টে প্র্যাকটিস শুরু। ২০০১ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি গুয়াহাটি হাইকোর্টের বিচারপতি হন।

বিচারপতি অরবিন্দ বোবদে : অরবিন্দ বোবদে ২০০০ সালে অ্যাডিশনাল জজ হিসেবে বম্বে হাইকোর্টে যুক্ত হন। ২০০২ সালে মধ্যপ্রদেশ হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি হন বোবদে। রঞ্জন গগৈ অবসর নেয়ার পর নতুন প্রধান বিচারপতি হবেন তিনি। অরবিন্দ বোবদে ২০১৩ সালে সুপ্রিমকোর্টের সঙ্গে যুক্ত হন ।

বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড় : ওয়াই ভি চন্দ্রচূড়ের পুত্র ডিওয়াই চন্দ্রচূড়। ওয়াই ভি চন্দ্রচূড় ভারতের সবচেয়ে দীর্ঘকালীন প্রধান বিচারপতি ছিলেন। ২০১৬ সালে সুপ্রিমকোর্টের বিচারক নিযুক্ত হন।

বিচারপতি অশোক ভূষণ : অশোক ভূষণ ১৯৭৯ সালে প্র্যাকটিস করতেন এলাহাবাদ হাইকোর্টে। তিনি ২০০১ সালের এপ্রিলে বিচারপতি নিযুক্ত হন। ২০১৪ সালের জুলাইয়ে হাইকোর্টে এবং কয়েক মাস পর ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি হন।

বিচারপতি আবদুল নাজির : বাবরি মসজিদ মামলার রায় দেয়অ পাঁচ সদস্যের মধ্যে একমাত্র মুসলমান বিচারপতি আবদুল নাজির। ১৯৮৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন। ২০০৩ সালে অতিরিক্ত বিচারক হিসেবে নিয়োগ পান। ২০১৭ সালে সুপ্রিমকোর্টের বিচারক হন।

Comments

comments