দেশজুড়ে

রাজশাহীর মোহনপুরে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ মামলার তিন আসামি গ্রেপ্তার


রাজশাহী ব্যুরো : রাজশাহীর মোহনপুরে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে এক কলেজছাত্রী (২০) ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করা মামলার তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার (১৪ মে) আসামিদেরকে জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

কলেজ ছাত্রী বাদি হয়ে গত (৩০ এপ্রিল) তিনজনকে আসামি করে মোহনপুর থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন। মামলার পর মোহনপুর থানার পুলিশ ভিকটিমকে উদ্ধার করে হাসপাতালের মাধ্যমে স্বাস্থ্য পরীক্ষার করেছেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মোহনপুর থানার পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহীন মাহমুদ বলেন, মামলার পর থেকে আসামিরা পলাতক ছিল। গত বুধবার রাতে রাজশাহী শহর থেকে দুই আসামি নৈমুদ্দিন ওরফে নয়ন (২০) তার পিতা নহির উদ্দিন (৫০) এবং নওগাঁ থেকে অপর আসামি ফাজেলা বেগম (৩৮) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে গ্রেপ্তারকৃত ফাজেলা বেগমের ছবি দিত থানা পুলিশ অপরাগতা প্রকাশ করেন।

মামলার সূত্রে জানা গেছে, মোহনপুর উপজেলার কালিগ্রাম মধ্যপাড়া গ্রামের নহির উদ্দিনের ছেলে নৈমুদ্দিন ওরফে নয়ন (২০) একই গ্রামের জনৈক ব্যক্তির কলেজ পড়–য়া মেয়েকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে গত (২১ এপ্রিল) সকাল ১০ টার সময় ভিকটিমের বাড়িতে ধর্ষণ করে। বিয়ের জন্য চাপ সৃষ্টি করলে গত (২৯ এপ্রিল) সন্ধ্যার বিয়ে করার কথা বলে নৈমুদ্দিন নয়ন তাদের বাড়ীতে ডেকে নেয়। নয়নে বাড়ীতে গিয়ে দেখিতে পায় যে, তিনি অন্য মেয়েকে বিবাহ করে বউ নিয়ে বাড়িতে আসে। ওই সময় কলেজছাত্রী বিয়ের কথা জিজ্ঞাসা নৈমুদ্দিন নয়নের চাচী ফাজেলা বেগমসহ লোকজন মিলে মারপিট করে বাড়ি থেকে বের করে দেন। মামলায় উল্লেখ রয়েছে নৈমুদ্দিন নয়নের বাবা মামলার আসামি নহির উদ্দিন বাড়ীতে আসিয়া খুন জখমসহ বিভিন্ন হুমকি প্রদান করে কলেজছাত্রীকে।

মোহনপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) মোস্তাক আহম্মেদ জানান, নয়নসহ তিনজনকে আসামিকে গ্রেপ্তার করে জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button