বিকাল ৪:৪০ বৃহস্পতিবার ১৭ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং

ন্যাপ মহাসচিব: কাউকে পিটিয়ে হত্যার লাইসেন্স ছাত্রলীগকে কে দিয়েছে?

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : অক্টোবর ১০, ২০১৯ , ১:৫৫ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : রাজনীতি
পোস্টটি শেয়ার করুন

ভিন্নমত প্রকাশ করলেই কাউকে পিটিয়ে হত্যার লাইসেন্স ছাত্রলীগকে কে দিয়েছে প্রশ্ন রেখে বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে যখন ফাহাদ নিহত হয়েছে তার আগে তার মতো অসংখ্য ঘটনা ঘটেছে। হলের প্রভোস্ট, হলের হাউস টিউটর এবং আবরার নিহত হওয়ার পরে ৩৬ ঘণ্টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে দেখা যায়নি। আজ যদি দেশে আইনের শাসন থাকতো তাহলে আসামির তালিকায় তারাও থাকতো। কারণ তারা দায়িত্ব অবহেলা করেছেন।

বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) শহীদ জেহাদ দিবস উপলক্ষে দৈনিক বাংলামোড়ে স্মৃতিস্তম্ভে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ’র পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে উপস্থিত নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, শিক্ষাঙ্গনে এ ধরনের সন্ত্রাসের ফলে এর আগেও শিক্ষার্থীদের জীবন নষ্ট হয়েছে। নিহত হওয়ার পরে আমরা ফাহাদের নাম জানি। কিন্তু যারা পঙ্গু হয়েছে, যাদের শিক্ষাজীবন নষ্ট হয়েছে তাদের হিসাব তো আমরা জানি না। অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে শহীদ জেহাদদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থা হুমকির মুখে।

তিনি আরো বলেন, শহীদ নাজির উদ্দিন জেহাদ সামরিক শাসন বিরোধী আন্দোলনে একটি অবিস্মরণীয় নাম। জেহাদের রক্ত স্রোতের ধারা বেয়েই সংগঠিত গণঅভ্যুত্থানে, স্বৈরশাসকের পতন হয়। গণতন্ত্রকে পুনঃপ্রতিষ্ঠা এবং দৃঢ় ভিত্তির উপর দাঁড় করানোর দৃঢ় প্রত্যয় নিয়েই জেহাদ নিজের জীবন উৎসর্গ করেছিলেন। আমরা তার সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে না পারলে তার আত্মা কষ্ট পাবে। তাই গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে রক্ষা এবং এর বিকাশ সাধন করতে হবে, আর এর জন্য আমাদের আরও সংগ্রাম করতে হবে।

তিনি বলেন, গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে রক্ষা এবং এর বিকাশ সাধনে আরো সংগ্রাম করতে হবে। গণতন্ত্র মানে শুধুমাত্র নির্বাচন নয়, মানুষের স্বাধীনতা ও মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করা। কিন্তু আজ রাষ্ট্র ও সমাজের সকল স্তরে অগণতান্ত্রিক অপশক্তি জগদ্দল পাথরের মত চেপে বসে আছে।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন : ন্যাপ ভাইস চেয়ারম্যান স্বপন কুমার সাহা, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামাল ভুইয়া, মহানগর সভাপতি মো. শহীদুননবী ডাবলু, যুব ন্যাপ সমন্বয়কারী বাহাদুর শামিম আহমেদ পিন্টু প্রমুখ।

Comments

comments