সকাল ৮:২৩ শনিবার ১৯শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

গোপালপুরে ঝিনাই নদীর ভাঙ্গণে শতাব্দী প্রাচীন সড়ক বিলীণ; বিশ গ্রামের মানুষের ভোগান্তি | রাবি শিক্ষার্থীর মাথা ফাটিয়ে দিল দুর্বৃত্তরা | বরেণ্য চিত্রশিল্পী কালীদাস কর্মকারের মৃত্যুতে ন্যাপ'র শোক | ঈশ্বরদীতে ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় সাংবাদিককে পেটালো ইভটিজাররা | ঈশ্বরদীতে ইপটিজিং প্রতিবাদ করায় সাংবাদিকে পেটালো ইপটিজাররা | মহেশপুরে গাজাসহ ৩ জন আটক | কুষ্টিয়ার হাটশ হরিপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত | নিকের সঙ্গে আর নয়, ডিভোর্স চান প্রিয়াঙ্কা! | কুষ্টিয়ায় জাঁকজমকপূর্ণভাবে বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের জন্মদিন উদযাপিত | সুনামগঞ্জে দু’পক্ষের গোলাগুলিতে মাদ্রাসাছাত্র নিহত, গুলিবিদ্ধ ২ |

আবরারের গ্রামের বাড়ি যাচ্ছেন বুয়েট ভিসি

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : অক্টোবর ৯, ২০১৯ , ১২:৪৫ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : শিক্ষা
পোস্টটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়-বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়া যাচ্ছেন বুয়েটের ভিসি অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলাম। বুধবার সকালে তিনি কুষ্টিয়ার উদ্দেশে রওনা হয়েছেন বলে জানিয়েছেন ভিসির একান্ত সহকারী কামরুল ইসলাম।

তিনি জানান, আবরারের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে ভিসি সাইফুল ইসলাম সকালেই কুষ্টিয়ার উদ্দেশে রওনা হয়েছেন। বিকেল তিনটা নাগাদ তার আবরারের বাড়িতে পৌঁছার কথা। সেখানে তিনি আবরারের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাবেন বলে জানা গেছে।

এর আগে, বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার দুদিন পর মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে তাদের বিভিন্ন দাবি মেনে নেয়ার ঘোষণা দেন ভিসি।

মঙ্গলবার প্রভোস্টদের সঙ্গে বৈঠক শেষে শিক্ষার্থী ও সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার জন্য কার্যালয়ের বাইরে আসেন ভিসি। এ সময়, ভিসি আবরার হত্যার ঘটনায় শিক্ষার্থীদের সব দাবির প্রতি নীতিগত সমর্থন জানিয়ে বলেন, ‘আমি তোমাদের সঙ্গে আছি।’

এ সময়, শিক্ষার্থীরা ভিসিকে প্রশ্ন করেন আবরার হত্যার পর ক্যাম্পাসে আসেননি কেন? জবাবে ভিসি জানান, তিনি ক্যাম্পাসেই ছিলেন। এক পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা, ভিসিকে উদ্দেশ্য করে ভুয়া ভুয়া বলে স্লোগান দিতে থাকেন।

প্রসঙ্গত, ৬ অক্টোবর মধ্যরাতে বুয়েটের সাধারণ ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আবরারকে শেরেবাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যায়। সোমবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এই ঘটনায় নিহতের বাবা মো. বরকত উল্লাহ ১৯ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত কয়েক জনকে অভিযুক্ত করে চকবাজার থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। মামলায় ১০ জনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

এদিকে মঙ্গলবার, সকাল ১০টায় কুমারখালীর রায়ডাঙ্গায় আবরারের গ্রামের বাড়িতে তৃতীয় ও শেষ জানাজা শেষ হবার পর পারিবারিক কবরস্থানে তার মরদেহ দাফন করা হয়।

Comments

comments