সকাল ৭:৪৯ শনিবার ১৯শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

গোপালপুরে ঝিনাই নদীর ভাঙ্গণে শতাব্দী প্রাচীন সড়ক বিলীণ; বিশ গ্রামের মানুষের ভোগান্তি | রাবি শিক্ষার্থীর মাথা ফাটিয়ে দিল দুর্বৃত্তরা | বরেণ্য চিত্রশিল্পী কালীদাস কর্মকারের মৃত্যুতে ন্যাপ'র শোক | ঈশ্বরদীতে ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় সাংবাদিককে পেটালো ইভটিজাররা | ঈশ্বরদীতে ইপটিজিং প্রতিবাদ করায় সাংবাদিকে পেটালো ইপটিজাররা | মহেশপুরে গাজাসহ ৩ জন আটক | কুষ্টিয়ার হাটশ হরিপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত | নিকের সঙ্গে আর নয়, ডিভোর্স চান প্রিয়াঙ্কা! | কুষ্টিয়ায় জাঁকজমকপূর্ণভাবে বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের জন্মদিন উদযাপিত | সুনামগঞ্জে দু’পক্ষের গোলাগুলিতে মাদ্রাসাছাত্র নিহত, গুলিবিদ্ধ ২ |

কেশরহাট পৌরসভা বিদায়ী উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাকে সংবর্ধনা

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : অক্টোবর ৬, ২০১৯ , ১১:০১ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : রাজশাহী
পোস্টটি শেয়ার করুন

মোহনপুর প্রতিনিধিঃ মোহনপুরের কেশরহাট ব্লকের উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা জিল্লুর রহমানের বিদায় সংবর্ধনা প্রদান করেছে পৌর কর্তৃপক্ষ। রোববার বেলা ১১টায় কেশরহাট পৌরসভা হলরুমে অয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মেয়র শহিদুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন উপজেলা কৃষি অফিসার রহিমা খাতুন।

বিদায়ী উপসহকারি কৃষি অফিসার জিল্লুর রহমান ২৬ ডিসেম্বে ১৯৯২ সালে চাঁপায় নবাবগঞ্জ জেলার নাচোল উপজেলায় চাকুরীতে যোগদান করেন। ১৯৮৫ সালে বদলি হয়ে তিনি রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার বাকশিমইল ব্লকে দায়িত্বগ্রহণ করেন। এরপর তিনি ১৯৯২ সালে কেশরহাট ব্লকে যোগদান করেন। সুদীর্ঘ প্রায় ২৭ বছর যাবৎ তিনি কেশরহাটে কর্মরত থেকে তার চাকুরী জীবন শেষ করলেন। চলতি বছরের ১৮ অক্টোবর হতে তার চাকুরী জীবনের সমাপ্তি ঘটবে। তাঁর বাড়ি নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলার বালিস গ্রামে। পিতার নাম মৃত নঈমুদ্দিন ম-ল।

পৌরসভার সহকারি কর আদায়কারি দেলোয়ার হোসেনের অনুষ্ঠান পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন মোহনপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি ও পৌরভার প্যানেল মেয়র রুস্তম আলী প্রামাণিক, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য শফিকুল ইসলাম মাস্টার, পৌর কাউন্সিলরর কফিল উদ্দিন, মোবারক হোসেন টাইগার, গিয়াস উদ্দিন, নারী কাউন্সিলর মোমেনা আক্তার, জোনারা বেগম, ঘাসিগ্রাম ইউনিয়নের উপসহকারি কৃষি অফিসার নওশাদ আলী প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে বিদায়ক্ষণে আবেগঘন কন্ঠে জিল্লুর রহমান বলেন কেশরহাটসহ মোহনপুরের মাটি ও মানুষের সাথে আমার গড়ে ওঠা সুন্দর সম্পর্ক ছেড়ে যাবার নয়। এখানে ২৭ বছর চাকুরি জীবনে আমার বিরুদ্ধে একটি মানুষ একটিবারও অভিযোগ তুলেন নি। পিছিয়ে পড়া কৃষি ও কৃষককে এগিয়ে নিতে আমাকে এখানে দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল। আজ এখানকার কৃষকরা ভাল মানের ফসল উৎপাদন করে আজ তারা স্বাবলম্বী হয়ে উঠেছেন। আরো প্রসারতা কামনা করে সকলের কাছে ক্ষমা ও দোয়া প্রার্থনা করেন তিনি।

মেয়র শহিদুজ্জামান বলেন বিদায়ী কৃষি অফিসার জিল্লুর রহমান একজন সৎ ও নিষ্ঠার সাথে তার দায়িত্ব পালন করে এসেছেন। কোনোদিন একটি মানুষ তার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ তোলেনি। যে যেখান থেকে তাকে ডেকেছেন তিনি সেখানেই ছুটে গেছেন। কোনো মাঠে রোগবালায়ের প্রাদূর্ভাব হলে ছুটির দিনেও সেখানে কৃষকদের মাঝে পরামর্শ দিতে দেখা গেছে। তার সুস্থতা কামনা করে তিনি।

Comments

comments