রাত ৪:৫১ শনিবার ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

‘প্রধানমন্ত্রীর কারণে বিশ্ব নেতৃবৃন্দ মিয়ানমারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হচ্ছেন’

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৭ , ১১:৩৭ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : জাতীয়
পোস্টটি শেয়ার করুন

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের প্রতি মানবতা দেখিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গৃহীত পদক্ষেপের কারণে বাংলাদেশ আজ জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে প্রশংসা অর্জন করেছে।

আজ শুক্রবার রাজধানীর মিরপুরে হার্ট ফাউন্ডেশন মিলনায়তনে বিশ্ব হার্ট দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

হার্ট ফাউন্ডেশন এই সভার আয়োজন করে।তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে খাদ্য ও চিকিৎসার ব্যবস্থা করার পাশাপাশি তাদেরকে ফিরিয়ে নেয়ার জন্য মিয়ানমার সরকারের প্রতি চাপ সৃষ্টি করতে বিশ্ব জনমত গড়ে তুলছেন। তাঁর কূটনৈতিক উদ্যোগের কারণে বিশ্ব নেতৃবৃন্দ মিয়ানমার সরকারের বর্বরতার বিরুদ্ধে সোচ্চার হচ্ছেন।

হৃদরোগ ও অন্যান্য অসংক্রামক রোগ থেকে সুরক্ষিত রাখতে তামাক ও মাদক সেবন থেকে দূরে থাকার জন্য সচেতনতা বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার একদিকে যেমন জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকি স্বরূপ। হৃদরোগে আক্রান্ত ও জটিল করে তোলার পেছনেও তামাকজাত দ্রব্য সহায়ক ভুমিকা রাখে।

তিনি বলেন, সম্মিলিতভাবে ব্যাপক সচেতনতা সৃষ্টি করে এবং আইনের যথাযথ প্রয়োগের মাধ্যমে এ দেশের মানুষকে তামাকের ভয়াল গ্রাস থেকে রক্ষা করতে পারব। আর গড়ে তুলতে পারব একটি সুস্থ, সরল ও উৎপাদনশীল দেশ। ধোঁয়াযুক্ত ও ধোঁয়াবিহীন সকল ধরনের তামাকই স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, তামাক ব্যবহারের প্রত্যক্ষ ফল হিসেবে বাংলাদেশে প্রতি বছর ৩০ বছরের বেশি বয়স্ক জনগোষ্ঠীর মধ্যে ৫৭ হাজার মানুষ মৃত্যুবরণ করেন এবং পঙ্গুত্ববরণ করেন প্রায় ৪ লাখ লোক।

হৃদরোগের ওপর বিশেষজ্ঞদের গবেষণা প্রতিবেদন তুলে ধরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, অস্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া এবং কায়িক পরিশ্রমের অভাব- এসব কিছু নিয়ন্ত্রণ করলে হৃদরোগ এবং স্ট্রোকজনিত শতকরা ৮০ ভাগ মৃত্যু এড়ানো সম্ভব। অধিকাংশ ব্যক্তি যতক্ষণ জেগে থাকে তার অর্ধেকেরও বেশি সময় কর্মক্ষেত্রে কাজের মধ্যে থাকে। সেজন্য স্বাস্থ্যকর কর্ম পরিবেশ একান্ত দরকার। খেতে হবে স্বাস্থ্যসম্মত খাবার।

ফাউন্ডেশনের সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) এম এ মালিকের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ফাউন্ডেশনের সেক্রেটারি জেনারেল অধ্যাপক ডা. আব্দুল আওয়াল রিজভি।

Comments

comments