সকাল ৯:১৫ রবিবার ১৭ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং

কিশোরগঞ্জ শহরের বিনোদন ও সংস্কৃতিচর্চার প্রাণকেন্দ্র গুরুদয়াল সরকারি কলেজ লেক

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : আগস্ট ১৯, ২০১৯ , ৫:২৫ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : ট্যুরিজম
পোস্টটি শেয়ার করুন

আল আমিন, গুরুদয়াল কলেজ : গুরুদয়াল সরকারি কলেজ লেক। এই নামটা যেন শিক্ষার্থীদের কাছে প্রাণের স্পন্দন। ক্যাম্পাসে আড্ডা, বিনোদন, সাংস্কৃতিচর্চার প্রাণ কেন্দ্র হিসেবে পরিচিত এই জায়গাটি। বলছিলাম কিশোরগঞ্জ শহরের প্রাণ কেন্দ্র নরসুন্দা নদীর পাড়ে অবস্থিত গুরুদয়াল কলেজ লেক ও মুক্তমঞ্চের কথা।নরসুন্দার পাড় ঘেঁষে অপরূপ সৌন্দর্যের লীলানিকেতন হিসেবে পরিচিত এই লেকটি। লেকটির দক্ষিন পাশে কলেজের বিস্তীর্ন কেন্দ্রীয় খেলার মাঠ, ওয়াসিম উদ্দীন ছাত্র হল ও ওসমান গণি ছাত্র হল আর পশ্চিম দিকে কলেজটির মূল ফটকের অবস্থান। জায়গাটি শুধু কলেজের শিক্ষার্থীদের কাছে নয়, পুরো শহরের মানুষের কাছে বিনোদন ও সংস্কৃতিচর্চার অন্যতম প্রাণকেন্দ্র হিসেবে পরিচিত। একটু প্রশান্তির ছোঁয়া পেতে এখানে প্রতিনিয়ত মানুষ ভিড় জমায় ।

প্রশান্তির খুঁজে একটু ঘুরতে যাওয়া, আড্ডা, গিটারের তারে টুং টাং শব্দ, ভালবাসার মানুষের সাথে একটু রসায়ন মানেই নরসুন্দার পাড়। এখানে প্রতিটি বিকেল রং চা’য়ে মেতে উঠে আড্ডার টেবিল। গিটারের তারে বেঁজে উঠে অনুরাগের সুর।৷ প্রতিটি বিকেল যেন স্মৃতির পাতায় ধরে রাখার মতো।

প্রতি সপ্তাহে শুক্রবার ছুটির দিনে কলেজ লেকটি যেন মিলন মেলায় পরিনত হয়। শিক্ষার্থী ছাড়াও চাকরিজীবী ও বিভিন্ন পেশার মানুষ সারা সপ্তাহের গ্লানি দূর করে প্রশান্তির একটু নিঃশ্বাস নিতে আসে এই নরসুন্দার পাড়ে।আড্ডার ছলে কলেজের অর্থনীতি বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এই কলেজ লেক ও মুক্তমঞ্চ প্রতিটি শিক্ষর্থীর কাছে একটি স্বপ্নের জায়গা। কলেজ ক্যাম্পাসের মধ্যে বিনোদন ও সংস্কৃতি চর্চার একটি অন্যতম প্রধান কেন্দ্র হচ্ছে মুক্তমঞ্চ। তিনি বলেন, জাতীয় দিবসগুলো ছাড়াও বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় এই মুক্তমঞ্চে। তাছাড়াও তিনি বলেন, আমরা লেকে আড্ডার ছলে পড়াশুনা ও ক্যারিয়ার নিয়েও আলোচনা করে থাকি।

কলেজের অধ্যয়নরত শিক্ষার্থী ছাড়াও সাবেক শিক্ষার্থীরা প্রতিনিয়ত এখানে স্মৃতিচারন করতে আসে। একটু অবসর সময় পেলেই তারা ছুটে যায় নরসুন্দার পাড়ে। কলেজ জীবনের স্মৃতিচারন করতে গিয়ে সাবেক শিক্ষার্থী মোঃ ফয়সাল বলেন, উচ্চ মাধ্যমিকের সেরা সময়গুলো কাটিয়েছি এই মুক্তমঞ্চ ও কলেজ লেকে। বন্ধুদের সাথে আড্ডা, পড়াশুনার বিষয়গুলো শেয়ার করা সবকিছুই এই লেককে কেন্দ্র করেই হতো। তিনি বলেন, একটু অবসর সময় পেলেই এখনো ছুটে আসি নরসুন্দার পাড়ে।আবারো সবাই ফিরে পাই যেন সেই অমলিন স্মৃতি।

কিশোরগঞ্জ শহরের প্রতিটি মানুষের কাছে গুরুদয়াল সরকারি কলেজ লেক একটি স্বপ্নের জায়গা। একটু প্রশান্তির খুঁজে তারা ছুটে যায় সেখানে। শিক্ষার্থীদের বিনোদন ও সংস্কৃতি চর্চার প্রাণকেন্দ্র হিসেবে পরিচিত এই জায়গাটি।জায়গাটি দিন দিন দর্শনার্থীদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

Comments

comments