সন্ধ্যা ৭:৩৯ বুধবার ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

যশোরের বাগআঁচড়া ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের মতবিনিময় | কাঠালিয়ায় মাদকদ্রব্য উদ্ধারে সহায়তা করায় গ্রাম পুলিশকে পুরুস্কৃত করলেন ওসি | পলাশবাড়ীতে ৬৫ বোতল ফেন্সিডিল সহ এক মহিলা আটক | বীরগঞ্জে সাপের কামড়ে কিশোরের মৃত্যু | মির্জাপুরে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু | বীরগঞ্জে ছিনতাইকারী ডলার চক্রের প্রতারক ওসি পরিচয়দানকারী গ্রেফতার | পরিচ্ছন্নকর্মীর জন্য গাবতলী সিটি পল্লীতে আবাসনের ব্যবস্থা গড়ে তোলা হবে: মেয়র আতিকুল | বাজারে এলো ৫ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারিযুক্ত ‘অপো এ৯ ২০২০’ | ক্যাশ রিসাইক্লিং মেশিন উদ্বোধন করলো ইসলামী ব্যাংক | প্রিমিয়ার ব্যাংক এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর |

টাঙ্গাইলে ছেলে ধরা সন্দেহে তিন যুবককে গণধোলাই

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : জুলাই ২১, ২০১৯ , ১১:৫৫ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : ঢাকা
পোস্টটি শেয়ার করুন

আশিকুর রহমান, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলে ছেলে ধরা সন্দেহে পৃথকস্থানে তিন যুবককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা। টাঙ্গাইল সদর এবং কালিহাতী উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ তাদেরকে চিকিৎসার জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে ছেলে ধরা সন্দেহে এক যুবককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে স্থানীয় জনতা। রোববার বিকেলে নারান্দিয়া ইউনিয়নের সয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। প্রথমে তাকে কালিহাতী উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করে। খবর পেয়ে স্থানীয় জনতা ছেলে ধরার শাস্তির দাবিতে হাসপাতাল এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ বিষয়ে কালিহাতী থানার এসআই ফারুক বলেন, ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুনির শিকার যুবককে কালিহাতী উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্স থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পুলিশি প্রহরায় টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

তবে অাহতের স্বজনেরা জানান, বাড়ির চারপাশে বন্যার পানি। বাড়িঘর পানিতে তলিয়ে গেছে। ঘরে খাবার নেই। তাই সে জাল কিনতে সয়া হাটে এসেছিলেন।

অপরদিকে রোববার সকালে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার গালা ইউনিয়নের কান্দিলা বাজারে ছেলে ধরা সন্দেহে এক যুবককে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোর্পস করেছে জনতা। খবর পেয়ে পুলিশ ওই যুবককে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেলারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। ওই যুবকের নাম পরিচয় জানা যায়নি।

টাঙ্গাইল সদর উপজেলার গালা ইউপি সদস্য মজনু মিয়া জানান, রোববার সকালে জানতে পারি কান্দিলা বাজারে ছেলে ধরা সন্দেহে একজনকে মারধর করা হচ্ছে। তাৎক্ষনিকভাবে বাজারে গিয়ে দেখতে পাই ওই লোকটাকে ঘিরে অনেক মানুষ দাঁড়িয়ে আছে। পরে পুলিশে খবর দিলে তারা এসে তাকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

টাঙ্গাইল সদর ফাঁড়ির পরিদর্শক মোশারফ হোসেন জানান, ছেলে ধরা সন্দেহে গণধোলাইয়ের শিকার যুবকটি খুবই অসুস্থ, কথা বলতে পারছে না। তিনি ছেলে ধরা কিনা এখনই তা বলা যাবে না।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইল সদর মডেল থানার (ওসি) মীর মোশারফ হোসেন বলেন, বর্তমানে ওই ব্যক্তি হাসপাতালে চিকিসাধীন অবস্থায় রয়েছে। তদন্ত করে বিস্তারিত জানা যাবে।

তিনি আরও জানান,টাঙ্গাইল শহরে মাইকিং করা হচ্ছে। কাউকে সন্দেহ হলে আইন নিজের হাতে তুলে না নিয়ে পুলিশকে খবর দেয়ার জন্য বলা হচ্ছে।

অন্যদিকে, শনিবার রাতে টাঙ্গাইল পৌরসভার শান্তিকুঞ্জমোড়ে এক যুবককে ছেলে ধরা সন্দেহে স্থানীয়রা এক যুবককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। পুলিশ তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেছে। তার নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

টাঙ্গাইল জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে আইন নিজের হাতে তুলে নিতে নিষেধ করা হয়েছে। কারো আচরণ সন্দেহজনক হলে পুলিশে জানানোর অনুরোধ করা হয়েছে। এ বিষয়ে জেলা পুলিশের তরফে মাইকিং করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

Comments

comments