দেশজুড়ে

যশোর- বেনাপোল মহসড়কের মৃতপ্রায় গাছ অপসারণ করে ৬ লেন করার দাবি


নাজিম উদ্দীন জনি,শার্শা(বেনাপোল)প্রতিনিধিঃ যশোর -বেনাপোল মহাসড়কের শতবর্ষী জরাজীর্ণ মৃতপ্রায় গাছ অপসারন করে ছয় লেন করে এশিয়ান হাইওয়ে করিডোর সড়কটি আন্তর্জাতিক মানের প্রসস্তকরনে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বেনাপোল সিএন্ডএফ অ্যাসোসিয়েশন নেতাকর্মীরা ও স্থানীয়রা। এসময় বেনাপোলে ৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল করার দাবিও জানান তারা।

সোমবার (২৭ জুলাই) দুপুর১২টায় বেনাপোল সিএন্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের অডিটোরিয়ামে এ সংবাদ সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জানা যায়, দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সর্ব বৃহত্তর স্থলবন্দর হচ্ছে বেনাপোল। বেনাপোল বন্দর থেকে কলকাতার দূরত্ব কম হওয়ায় ব্যবসায়ীদের আগ্রহ বেশি এ বন্দরে। যে কারনে যশোর-বেনাপোল মহাসড়ক দিয়ে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মালবাহী ট্রাক, চেসিস ও বিভিন্ন ধরনের দূর পাল্লার পরিবহন চলাচল করে থাকে। এ বন্দর দিয়ে দেশের সিংহভাগ শিল্প কলকারখানা, গার্মেন্টস ইন্ডাস্ট্রির মালামাল ও কাঁচা পণ্য সহ ৩০ হাজার কোটি টাকার অধিক আমদানি রপ্তানি হয়ে থাকে।

যা থেকে প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হয়ে থাকে। এবং প্রতিদিন ৮-১০ হাজার পাসপোর্ট যাএী ভারত-বাংলাদেশ যাতায়াত করে থাকে।

এসময় বক্তারা বলেন, এই বেনাপোল- যশোর মহাসড়ক দিয়ে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে শত শত পণ্য বোঝায় ট্রাক সহ দূর পাল্লার পরিবহন বেনাপোল বন্দরে আসা যাওয়া করে থাকে। এজন্য বেনাপোল যশোর মাহা সড়কের দুই পাশে শতবর্ষী জরাজীর্ণ গাছ অপসারন করে ছয় লেন রাস্তা করা দরকার।

এছাড়া রাস্তার পাশের এই শতবর্ষী জরাজীর্ণ গাছের কারনে প্রতিনিয়ত গাছের সাথে ধাক্কা খেয়ে দূর্ঘটনা ঘটছে। একটু ঝড়ো হাওয়া হলেই গাছের ডাল-গাছ উপ্ড়ে পড়ছে রাস্তার উপরে ও রাস্তার পাশে বসবাসরত বাড়িতে। এতে করে অনেকে অকালে প্রাণ হারাচ্ছেন। এজন্য অতি দ্রুত রাস্তার এই শতবর্ষী গাছ অপসারন করে ছয় লেনর রাস্তা করার দাবি জানিয়েছেন তারা।

তারা আরো বলেন, বর্তমানে যশোরের চাঁচড়া থেকে বেনাপোল পর্যন্ত রাস্তাটি ৩০ ফিট চওড়া করে পুনরায় সংস্কারের ঠিকাদারি কাজ পেয়েছেন মের্সাস মোজাহার এন্টারপ্রাইজ নামে একটি কোম্পানি। তবে রাস্তার দুই পাশে শতবর্ষী এই গাছ গুলো থাকায় ২৪ ফিট চওড়া করে রাস্তা করতে হচ্ছে। ফলে রাস্তাটির চওড়া কম হয়ে গিয়েছে। যার করনে দ্রুত গতিতে আসা বিভিন্ন ধরনের যানবাহন একে অন্যকে সাইড দেওয়ার সময় প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। বর্তমানে বিষয়টি নিয়ে স্থানী জনগনের মধ্যে চরম ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, সিএন্ডএফ অ্যাসোসিয়েশন সভাপতি মফিজুর রহমান সজন, সিনিয়র সহ-সভাপতি নুরুজ্জামান, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দীন,উপজেলা ভায়েস চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান সহ অন্যান্ন নেতাকর্মী ও স্থানীয়রা।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button