সন্ধ্যা ৭:২৪ বুধবার ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

যশোরের বাগআঁচড়া ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের মতবিনিময় | কাঠালিয়ায় মাদকদ্রব্য উদ্ধারে সহায়তা করায় গ্রাম পুলিশকে পুরুস্কৃত করলেন ওসি | পলাশবাড়ীতে ৬৫ বোতল ফেন্সিডিল সহ এক মহিলা আটক | বীরগঞ্জে সাপের কামড়ে কিশোরের মৃত্যু | মির্জাপুরে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু | বীরগঞ্জে ছিনতাইকারী ডলার চক্রের প্রতারক ওসি পরিচয়দানকারী গ্রেফতার | পরিচ্ছন্নকর্মীর জন্য গাবতলী সিটি পল্লীতে আবাসনের ব্যবস্থা গড়ে তোলা হবে: মেয়র আতিকুল | বাজারে এলো ৫ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারিযুক্ত ‘অপো এ৯ ২০২০’ | ক্যাশ রিসাইক্লিং মেশিন উদ্বোধন করলো ইসলামী ব্যাংক | প্রিমিয়ার ব্যাংক এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর |

পূর্বাচলের ৮৪ প্লট নিয়ে বিতর্ক অহেতুক, বললেন শ ম রেজাউল করিম

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : মার্চ ৯, ২০১৯ , ৯:০৪ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : ঢাকা
পোস্টটি শেয়ার করুন

রাজধানীর পূর্বাচলের যে ৮৪টি প্লট নিয়ে বিতর্ক উঠেছে, তা ভুল ধারণার উপর সৃষ্টি হয়েছে বলে দবি করেছেন, গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।শনিবার রাজউকের পূর্বাচল প্রকল্প এলাকা ও কুড়িল থেকে বালু নদী পর্যন্ত ১০০ ফুট খাল খনন প্রকল্প পরিদর্শনের সময় এ কথা জানান তিনি।

মন্ত্রী রেজাউল করিম বলেন, নানা প্রতিবন্ধকতার কারণে পূর্বাচল প্রকল্পের কাজে দেরি হয়েছে। এই বছরের মধ্যেই উত্তরা প্রকল্পের বরাদ্দ পাওয়া সকল বাসিন্দারাই বসবাস উপযোগী প্লট পাবেন। প্রকল্পের প্রতিটি কাজে স্বচ্ছতা আনার তাগিদ দিয়ে মন্ত্রী বলেন, প্রকল্পে বিলম্ব ঘটিয়ে ব্যয় বাড়ানো কোনোভাবেই বরদাশত করা হবে না।

বহুল আলোচিত পূর্বাচলের ‘আইকনিক টাওয়ার’ নির্মাণের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষার বিষয় বাকি রয়েছে। সেগুলো দ্রুততার সঙ্গে শেষ হওয়ার পরে আইকনিক টাওয়ারের নির্মাণ শৈলীটা সামনে চলে আসবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ এটাই সবচেয়ে বড় কোনো প্রকল্প যেখানে যথেষ্ট ফাঁকা জায়গা রাখা হচ্ছে। যেখানে ঢাকায় সাত থেকে আট ভাগ ফাঁকা জায়গা আর এখানে ৪৫ ভাগ ফাঁকা জায়গা।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মনে করেন “সকলের জন্য আবাসন, কেউ থাকবে না গৃহহীণ’ উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য, বস্তিবাসীদের জন্য, যাদের স্বচ্ছলতা আছে তাদের জন্যসহ সবার আবাসনের জন্য আমরা কাজ করছি। মন্ত্রী আরো যোগ করেন, ‘একটি মানুষও আবাসহীন থাকবে না। পূর্বাচলে যাদের জমি অধিগ্রহণ করা হচ্ছে তারা আধুনিক ও নাগরিক সকল সুবিধা সম্পন্ন স্যাটেলাইট টাউনের অধিবাসী হচ্ছেন। আবার তিনি ক্ষতিপূরণের টাকাও পাচ্ছেন। উন্নয়নের সকল সুবিধা তাদেরকে দেওয়া হচ্ছে’।

উন্নত রাষ্ট্রের অনুকরণে পূর্বাচলে কাজের প্রক্রিয়া দ্রুততার সাথে চলছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘কোথাও যাতে পানি আটকে না থাকে, বর্জ্য আটকে না থাকে, সব পরিকল্পনা মাথায় নিয়ে পূর্বাচলে কাজ চলছে। পরিবেশ সম্মত আধুনিক নগর হবার জন্য যা যা করা দরকার, পূর্বাচল প্রকল্পে সবকিছুই করা হচ্ছে। মন্ত্রী বলেন, কিছু লোক আছে যারা চোখ থাকতে অন্ধ, তাদের শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়ন চোখে পড়ে না। আমরা পরিবেশবান্ধব, আধুনিক পূর্বাচল সিটি গড়ে তুলে তাদেরকে সরকারের উন্নয়ন দেখাতে চাই।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ। এ উপাধি আর কাউকে দেয়া হয়নি। আপনারা আমাদের ত্রুটি ধরিয়ে দেয়ার পাশাপাশি উন্নয়ন কাজগুলোও মানুষের সামনে নিয়ে আসুন। বাংলাদেশ যে উন্নয়নের রোল মডেল সেটা সবার কাছে তুলে ধরুন’।

গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী পরিদশর্নকালীন দিনব্যাপী রাজধানীর কুড়িল থেকে বালু নদী পর্যন্ত ১০০ ফুট খাল খনন ও উন্নয়ন প্রকল্পের বিভিন্ন খনন ও উন্নয়ন কার্যক্রম, পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্পের বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন, প্রকল্প বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দেন এবং স্থানীয়দের সাথে কথা বলেন।

পরিদর্শনকালীন রাজউকের চেয়ারম্যান মো. আব্দুর রহমানসহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ রাজউকের ঊদ্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ, প্রকল্প পরিচালকগণ, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. ইয়াকুব আলী পাটোয়ারি ও অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments