দেশজুড়ে

দীর্ঘ ১০৫ দিন পর বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য শুরু


শার্শা(বেনাপোল)প্রতিনিধিঃ দেশের বৃহত্তম স্থল বন্দর বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দরের মধ্যে দীর্ঘ ১০৫ দিন পর স্বাস্থ্য বিধি মেনে পূনরায় আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য সচল হয়েছে। রবিবার (৫ জুলাই) বিকাল সাড়ে ৫ টার সময় স্বাস্থ্য বিধি মেনেই দুই দেশের মধ্যে এ বাণিজ্য শুরু করা হয়। এছাড়া প্রথম দিনে ৫ টি আমদানির ও ৫ টি রপ্তানির পণ্য বোঝায় ট্রাক দুই বন্দরে প্রবেশ করেছে।

এর আগে করোনা সংক্রমণ রোধে গত ২২ মার্চ এপথে বেনাপোল বন্দরের সাথে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ আমদানি- রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ করে দিয়েছিলো। এদিকে (৭ মে) আমদানি সচল হলেও রপ্তানি সচল হয়নি। তবে আজ (৫ জুলাই) থেকে রপ্তানি বানিজ্য সচল হয়েছে।

বেনাপোল কাস্টমস হাউজের রাজস্ব কর্মকর্তা নাঈম মীরন জানান, করোনার সংক্রমণ নিয়ে আশঙ্কা থাকায় সীমান্ত অতিক্রমের আগেই দু’দেশের গাড়ি চালকদের শারীরিক অবস্থার পরীক্ষা করা হচ্ছে। এছাড়া ট্রাকগুলো উভয় দেশে স্যানিটাইজ করা হবে । ফেরার সময়ও চালকদের শারীরিক পরীক্ষা করা হবে। সেই সাথে দ্রুত পণ্য খালাস করে দিনে দিনে ট্রাকগুলো ফিরে যাবে।

ব্যবসায়িরা জানান, করোনার কারনে দীর্ঘদিন আমদানি রপ্তানি বন্ধ থাকায় আমাদের অনেক লোকশান গুনতে হয়েছে । তবে বাণিজ্য চালু হওয়ায় কিছুটা হলেও ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পাবেন।

বেনাপোল স্থল বন্দরের উপ পরিচালক (ট্রাফিক) মামুন কবীর তরফদার জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম চালু করতে বন্দর কর্তৃপক্ষ থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এছাড়া ভারতীয় চালককরা যাতে পোর্টের বাইরে যেতে না পারে সে ব্যাপারে নিরাপত্তা ব্যবস্থাও জোরদার করা হয়েছে এবং বাংলাদেশি ট্রাক চালকদের স্বাস্থ্য বিধি মেনেই রপ্তানির পণ্য নিয়ে ভারতে পাঠানো হচ্ছে।

বেনাপোল সিএন্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন জানান, করোনার কারণে দীর্ঘ ১০৫ দিন ধরে এ বন্দর দিয়ে রপ্তানি বন্ধ ছিলো। করোনার ক্রান্তি সময়ে স্বাস্থ্যবিধিসহ অন্যান্য নির্দেশনা মেনে আজ বিকাল সাড়ে ৫ টা থেকে রপ্তানি শুরু হয়েছে। আমদানি রপ্তানি সচল হওয়ায় স্বস্তি ফিরিয়ে ব্যবসায়িদের মধ্যে।

উল্লেখ্য বেনাপোল বন্দর থেকে ভারতের কলকাতা শহরের দূরত্ব ৮৩ কিলোমিটার। মাত্র তিন ঘণ্টায় একটি পণ্যবাহী ট্রাক আমদানি পণ্য নিয়ে পৌঁছাতে পারে কলকাতা শহরে। তেমনি একই সময় কলকাতা থেকে পণ্যবাহী ট্রাক পৌঁছায় বেনাপোল বন্দরে। যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ হওয়াতে এ পথে ব্যবসায়ীদের আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যে প্রবল আগ্রহ রয়েছে। প্রতিবছর এ বন্দর দিয়ে প্রায় ৩৫ হাজার কোটি টাকার পণ্য আমদানি হচ্ছে। যা থেকে সরকার প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আয় করে থাকে এবং আমদানির সাথে পাল্লা দিয়ে দিন দিন বাড়ছে রপ্তানির পরিমান। এছাড়া বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতে প্রায় ৮ হাজার কোটি টাকা মূল্যের বিভিন্ন পণ্য রফতানি হয়ে থাকে। এ বছর ১০ হাজার কোটি টাকার পণ্য ভারতে রফতানি হওয়ার কথা ছিলো।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button