দেশজুড়ে

নীলফামারীর ডোমারে নদীতে পরে নিখোঁজ দুই শিশু উদ্ধার হয়নি এখনো

  • 18
    Shares

মোঃ ফরহাদ হোসাইন নীলফামারী প্রতিনিধি: নীলফামারীর ডোমারে নানাকে মাটি দিয়ে দাদির সাথে বাড়ি যাওয়ার পথে নদীতে পড়ে নিখোঁজ দুই শিশু একদিনের বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও তাদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

রংপুর বিভাগীয় ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল শিশু দুটিকে ৬ কিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত উদ্ধার করতে না পেরে শুক্রবার রাতেই উদ্ধার অভিজান সমাপ্ত ঘোষনা করা হয়। তবে শিশু দুটির পরিবারসহ স্থানীয়রা নদীর বিভিন্ন স্থানে উদ্ধার অভিজান অব্যাহত রেখেছে। নিখোঁজ শিশুরা হলেন, ডোমার উপজেলার জোড়াবাড়ি ইউনিয়নের বিএসসি পাড়া গ্রামের গোলাম রব্বানীর মেয়ে মনি আক্তার (৫) ও গোমনাতী ইউনিয়নের উত্তর গোমনাতী গ্রামের মো: নুরুজ্জামানের ছেলে মনোয়ার হোসেন (৬) তারা পরস্পর খালাতো ভাই-বোন।

সূত্রে যানা যায়, ডোমার উপজেলার জোড়াবাড়ি গ্রামের মজিবর রহমানের স্ত্রী রওশনারা বেগম (৫০) তার ছোট মেয়ের দুই সন্তান লিপু (১০) ও ন,রে জান্নাত মনি (৫) সহ বড় মেয়ের বাড়ি গোমনাতীতে মৃত নানাকে মাটি দিতে যায়। ঘটনার সময় তারা বড় মেয়ের (৬) বছরের ছেলে মনোয়ার হোসেন সহ ব্যাটারী চালিত ইজিবাইকে করে জোড়াবাড়ি গ্রামে ফিরছিল। পথে ওই ব্রীজের ভাঙ্গা অংশে ইজিবাইকটির চাকা পরে গেলে ইজিবাইকে থাকা তিন শিশু নদীতে ছিটকে পড়ে যায়। এ অবস্থায় ইজিবাইকে থাকা শিশু তিনটির নানি রওশনারা বেগমও নদীতে ঝাপিয়ে পড়ে। তিনি তার ছোট মেয়ের মেয়ে লিপুকে উদ্ধার করতে পােলেও ছোট ও বড় মেয়ের দুই সন্তানকে খুজে পায়নি।

ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান বলেন, ঘটনা স্থলে পুলিশ বাহিনীর একটি দল সেখানে রয়েছে। স্থানীয় লোকজন উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে। এদিকে নিখোঁজ দুটি অবুঝ শিশুর এই মর্মান্তিক ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। সকলেই শিশু দুটির জন্য দো’য়া করছেন তাদের যেন জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা সম্ভব হয়।


  • 18
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button