দুপুর ১২:২৭ রবিবার ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

নতুন কমিটির দ্বন্দ্বে বিএনপি কার্যালয় ভাঙচুর

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : আগস্ট ২৭, ২০১৮ , ১০:১০ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : রাজশাহী
পোস্টটি শেয়ার করুন

রাজশাহী মহানগরীর ছয়টি থানা ও তিনটি কলেজ শাখা ছাত্রদলের নতুন কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে মহানগর বিএনপির কার্যালয়ে হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে পদবঞ্চিত ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা।আজ সোমবার দুপুর ১২টার দিকে মহানগর বিএনপির কার্যালয়ে ঘোষিত নতুন এসব কমিটির সদস্যদের পরিচিতি সভা চলাকালীন এ হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।হামলার সময় কার্যালয়ের চারটি জানালার কাঁচ এবং প্রায় ২০টি প্লাস্টিকের চেয়ার ভাঙচুর করা হয়। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

 

 

এর আগে গতকাল রোববার দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত  মহানগর বিএনপির কার্যালয় তালাবদ্ধ করে রাখে পদবঞ্চিতরা।প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, আজ দুপুরে নতুন কমিটিগুলোর নেতাদের অংশগ্রহণে মহানগর বিএনপির কার্যালয়ে পরিচিতি সভা চলছিল। এ সময় পদবঞ্চিতরা এসে সভা বন্ধ করতে বলেন। এ নিয়ে উভয় গ্রুপের মধ্যে বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে নতুন কমিটি ও পদবঞ্চিতদের মধ্যে হাতাহাতি এবং চেয়ার ছোঁড়াছুড়ির ঘটনা ঘটে।

 

 

এতে কার্যালয়ের বেশ কিছু চেয়ার ও জানালার কাঁচ ভেঙে যায়।রাজশাহী সিটি কলেজ শাখা ছাত্রদলের নতুন কমিটির সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক লিমন বলেন, ‘রোববার রাতে আমরা নতুন কমিটির নেতাকর্মীরা মিজানুর রহমান মিনু ভাইয়ের (বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা) বাসায় তার সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলাম। তিনি রাজনৈতিক চর্চার জন্য বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে আমাদের বসতে বলেছিলেন। সে অনুযায়ী আজ দুপুরে আমরা বসে পরিচিতি সভা করছিলাম।

 

 

এ সময় লাঠিশোটা নিয়ে আমাদের ওপর হামলা চালানো হয়। এতে বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হন। পরে আমাদের বের করে দিয়ে কার্যালয়ে ভাঙচুর চালানো হয়।’এমদাদুল হক আরও বলেন, ‘যারা হামলা করেছেন তারা ছাত্রলীগের সঙ্গে মেলামেশা করেন। হামলায় কতিপয় যুবদল নেতা এবং অছাত্ররাও ছিলেন। পদবঞ্চিতরা তাদের এনে হামলার ঘটনা ঘটিয়েছেন।’এর আগে গত শনিবার নগরীর বোয়ালিয়া, রাজপাড়া, মতিহার, শাহমখদুম, কাশিয়াডাঙ্গা ও চন্দ্রিমা থানা এবং রাজশাহী কলেজ, সিটি কলেজ এবং নিউ গভমেন্ট ডিগ্রি কলেজ শাখা ছাত্রদলের কমিটি ঘোষণা করে মহানগর ছাত্রদল।

 

 

এসব কমিটিতে পদ না পেয়ে গতকাল দুপুরে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা দলীয় কার্যালয়ে গিয়ে তালা ঝুলিয়ে দেন। পরে বিকেলে নতুন কমিটির নেতারা তালা ভেঙে পরিচিতি সভা করেন।ভাঙচুরের বিষয়ে জানতে চাইলে মহনগর ছাত্রদলের সহসভাপতি মো. আরিফুজ্জামান বলেন, ‘নতুন কমিটির নেতাকর্মীরা সভা করছিলেন। আমাদের ছেলেরা গিয়ে তাদের বের হয়ে যেতে বলে। তখন নতুন কমিটির নেতারা আমাদের ছেলেদের গায়ে হাত তোলেন। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও চেয়ার ছোঁড়াছুড়ির ঘটনা ঘটে।’

 

 

এ ধরনের ঘটনা দুঃখজনক বলেও মন্তব্য করেন তিনি।মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শফিকুল হক মিলন বলেন, ‘এ ধরনের ঘটনা দুঃখজনক। তবে বিষয়টি নিয়ে খুব জরুরি ভিত্তিতে ছাত্রদলের উভয় গ্রুপের সঙ্গে আমরা বসব। অন্যায় যারা করবে তাদের কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।’নগরীর বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমান উল্লাহ বলেন, ‘ভাঙচুরের খবর পেয়ে বিএনপি কার্যালয়ে পুলিশ পাঠানো হয়। কিন্তু পুলিশ পৌঁছার আগেই ভাঙচুর চালিয়ে দুষ্কৃতিকারীরা পালিয়ে যায়। এ জন্য কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।’

Comments

comments