জাতীয়

একটার পর একটা লাশ তুলছেন ডুবুরিরা

  • 101
    Shares

যাত্রীবাহী লঞ্চডুবির ঘটনায় রাজধানীর বুড়িগঙ্গা নদী থেকে একটার পর একটা লাশ তুলেই চলেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ও কোস্ট গার্ড। এ রিপোর্ট লেখার সময় সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ২৫ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ অন্যদের উদ্ধারে এখনও অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস।

ঘটনাস্থল থেকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি আবুল খায়ের সংবাদমাধ্যমকে ২৫ জনের লাশ উদ্ধারের কথা নিশ্চিত করেছেন।

তবে ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসাইন যমুনা টেলিভিশনকে জানান, এ পর্যন্ত ১৭ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার তৎপরতা শেষে প্রাণহানির সঠিক সংখ্যা জানানো যাবে। দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে কাজ চলছে।

এর আগে সকাল ৯টার দিকে সদরঘাটের শ্যামবাজার প‌য়ে‌ন্টে ময়ূর-২ নামের লঞ্চের সঙ্গে ধাক্কা লেগে ডুবে যায় মর্নিং বার্ড লঞ্চ।

সূত্রে জানা গেছে, সকাল পৌনে ৮টার দিকে মর্নিং বার্ড লঞ্চটি অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে মুন্সীগঞ্জ থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসে। পথে ফরাশগঞ্জ এলাকায় ময়ূর-২ নামের লঞ্চের সঙ্গে ধাক্কা লাগলে ডুবে যায় সেটি।

কেরানীগঞ্জের একটি ডকইয়ার্ড থেকে মেরামত শেষে ময়ূর-২ নদীতে নামানোর সময় ওই দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে।

তবে ডুবে যাওয়া লঞ্চটি থেকে কয়েকজন যাত্রী সাঁতরে পাড়ে উঠলেও অনেকেই নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

বিআইড‌ব্লিউ‌টিএর যুগ্ম প‌রিচালক (বন্দর) একেএম আরিফ উদ্দিন যুগান্তর‌কে ব‌লেন, সকাল ৯টার দিকে মুন্সীগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা মর্নিং বার্ড লঞ্চটি সদরঘাটে বা‌র্দিং করার আগ মুহূর্তে চাঁদপুরগামী ময়ূর-২ লঞ্চটি ধাক্কা দেয়। এতে সঙ্গে সঙ্গে তুলনামূলক ছোট মর্নিং বার্ড লঞ্চটি ডুবে যায়। এ সময় লঞ্চটিতে কমপক্ষে অর্ধশতাধিক যাত্রী ছিলেন ব‌লে জানান তি‌নি।


  • 101
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button