দেশজুড়ে

পুঠিয়ায় সুদের টাকা নিয়ে পথে বসেছে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ি


নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীর পুঠিয়ায় সুদের ৫ লাখ টাকা নিয়ে পথে বসেছেন আরিফুল ইসলাম নামের এক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ি। গত তিন বছরে ওই টাকার সুদ চক্রাকারে পরিশোধ দিয়েছেন প্রায় ৩০ লাখ টাকা। সুদ ব্যবসায়ি এখনো আরো দাবি করছে ৩৬ লাখ টাকা। এতে কোনো কুলকিনারা না পেয়ে অবশেষে রোববার (২৮ জুন) দুপুরে ওই ক্ষুদ্র ব্যবসায়ি নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, আরিফুল ইসলাম উপজেলার নওপাড়া বাজারের একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ি। তার ব্যবসার সূত্রে দীর্ঘদিন থেকে ঝলমলিয়া এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে ও সুদের কারবারি ইসমাইল হোসেনের সাথে তার পরিচয় ঘটে। পরিচয়ের এক পর্যায়ে ব্যবসার পরিধি বাড়াতে অল্প সুদে ৫ লাখ টাকা দেয়ার প্রলোভন দেয় ইসমাইল হোসেন। তার প্রলোভনে ওই টাকা নেয় আরিফুল ইসলাম। এরপর থেকে চক্রাকারে বাড়তে থাকে সুদের পরিমান। গত তিন বছরে ওই ৫ লাখ টাকার সুদ দেয়া হয়েছে ৩০ লাখ টাকা। দেশে বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে তার ব্যবসা মন্দা শুরু হয়। যার কারণে গত তিন মাস থেকে তিনি টাকা দিতে ব্যর্থ হন। সম্প্রতি ওই সুদ ব্যবসায়ি তার কাছে আরো ৩৬ লাখ টাকা দাবি করে। আর টাকা দিতে না পারলে তার পরিবারকে গুলি করে হত্যার হুমকি দেয়। এ ঘটনায় সঠিক সুরাহা পেতে আরিফুল ইসলাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

এ বিষয়ে সুদ ব্যবসায়ি ইসমাইল হোসেন বলেন, আমি কোনো সুদের ব্যবসা করি না। ব্যবসায়িক কারণে আরিফুল ইসলাম ঝলমলিয়া বাজার এলাকা থেকে কয়েক দফায় তিনজন সুদ ব্যবসায়িদের নিকট থেকে প্রায় ১৫ লাখ টাকা নিয়েছে। আর আমি ওই টাকার জিম্মাদার ছিলাম। যার কারণে আরিফুলকে তাড়াতাড়ি ওই সুদের টাকা পরিশোধ করতে বলেছি।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওলিউজ্জামান বলেন, এ বিষয়ে আরিফুল নামের এক ব্যক্তির সাথে আমার মুঠোফোনে কথা হয়েছিল। আমি তাকে একটি লিখিত অভিযোগ দিতে বলেছিলাম। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button