দেশজুড়ে

মির্জাপুরে ২ পুলিশ ও ডাক্তারসহ আরো ১৮ জনের করোনা শনাক্ত

  • 317
    Shares

রাব্বি ইসলাম, স্টাফ রিপোর্টার: টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে নতুন করে ২ পুলিশ সদস্য, স্বামী-স্ত্রী ও শিশুসহ একই পরিবারের ৪জন নিয়ে মোট ১৮ জনের দেহে করোনা (কোভিড-১৯) ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে উপজেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৭৩ জনে।

আক্রান্তরা হলেন, মির্জাপুর থানার পুলিশ সদস্য (৫৬), মহেড়া পিটিসির পুলিশ সদস্য (২৭), জামুর্কী ইউনিয়নের কদিমধল্যা গ্রামের বাসিন্দা ও স্থানীয় হোমিও ডাক্তার (৫০), গোড়াই ইউনিয়নের কদিম দেওহাটা গ্রামের বাসিন্দা (৩৩), বাইমহাটি গ্রামের বাসিন্দা কিশোরী (১৩), সরিষাদাইড় গ্রামের বাসিন্দা স্বামী-স্ত্রী (৩১-২৩), একই পরিবারের এক শিশু (০৬) ও (৫১), বানাইল ইউনিয়নের ভররা গ্রামের বাসিন্দা (৩৩), ফতেপুর ইউনিয়নের শুভূল্যা গ্রামের বাসিন্দা (৪৬), একই গ্রামের বাসিন্দা (২০), গোড়াই ইউনিয়নের জোড়পুকুরপাড় এলাকার ভাড়াটিয়া নারী (৩১), বহুরিয়া ইউনিয়নের বড়গবড়া গ্রামের বাসিন্দা (২৩), গোড়াই ইউনিয়নের সোহাগপুর গ্রামের বাসিন্দা (২৬), একই ইউনিয়নের গন্ধব্যপাড়া গ্রামের বাসিন্দা (৫০), পোষ্টকামুরী গ্রামের বাসিন্দা কিশোরী (১৯) এবং খান গার্মেন্টস এর পোশাক শ্রমিক (৩০)।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সুত্র জানায়, গত ১৮ তারিখে সাংবাদিক, পুলিশ, ডাক্তারসহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকার জনগণের কাছ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পরদিন রাজধানীর আইপিএইচ ল্যাবে পাঠানো হয় এবং গত ২২,২৩ ও ২৪ তারিখের আংশিক রিপোর্টে মোট ১৮ জনের করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল মালেক বলেন, নতুন আক্রান্ত ও তাদের আশপাশের বাড়ি লকডাউনের প্রস্তুতি চলছে।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত উপজেলার একনারীসহ ৪জনের মৃত্যু হয়েছে এবং সুস্থ্য হয়েছেন ৪৩ জন। গত ২৬ই জুন পর্যন্ত এ উপজেলা থেকে ১১৮৪ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়েছে এর মধ্যে ১০৩৪ জনের ফলাফল পাওয়া গেছে এবং ১৫০ জনের ফলাফল এখনো পর্যন্ত এসে পৌছায়নি। প্রাপ্ত ফলাফলে করোনা ভাইরাসে নতুন ১৮জনসহ সংক্রমিত হয়েছেন মোট ১৭৩ জন। যা সারা জেলায় আক্রান্তের শীর্ষস্থান আদৌ পর্যন্ত ধরে রেখেছে।


  • 317
    Shares

Related Articles