দেশজুড়ে

করোনাকালে পলাশবাড়ীতে দিন দিন শিশুশ্রম বৃদ্ধি পাচ্ছে

  • 47
    Shares

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : শিশু শ্রম নিষিদ্ধ হলেও এটা গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে করোনাকালে শিশুছ্রম বৃদ্ধি পাচ্ছে। সমাজের সকলের সামনে আজ একটা স্বাভাবিক ব্যাপার হয়ে দাড়িয়েছে। নাই কোন ভালো আচারণ হোটেল হতে গালামাল গ্যারেজ এবং শিল্প প্রতিষ্ঠানে এ শিশুদিগকে মানুষ নয় অন্য কোন প্রজাতির মতো মনে করে। এদের খাবার, পোশাক, চিকিৎসা এবং আশ্রয় স্থল যেখানে ঘুমাবে ঐ জায়গাটুকু বর্তমান সভ্যসমাজ কল্পনাও করতে পারেনা।

অর্থনৈতিকভাবে কখনোই সফল হয়না। কাজ শিখানো হয় এটাই সবচাইতে বড় কথা এর মাধ্যমেই প্রতিষ্ঠানের মালিকগণ এদের রক্ত চুশে টাকা বানাচ্ছে এবং এদের খাবার মানও অনেক নিন্ম।আলাদা জগতের এবং সবসময় লোহা নিয়ে কাজ করায় এরা অনেকটা কঠিন মনের মানুষ হয়।এর পিছনে প্রধান কারণ বাবা মা এবং এতিম পথশিশু ।এদের শিক্ষাদিক্ষা কিছু নাই তারাই এই কাজে জড়িয়ে পড়ে। জেলাজুরে ওয়ালিং অধিকাংশ মালিকগণ এ অপরাধের সাথে যুক্ত, স্কুলের টিফিন পিরিয়ডে ও স্কুল শেষে শিশু শ্রম দিয়ে ঝুকি পূর্ণ ওয়ালিং ও ঝালায়ের কাজ করে নেয়। এখানে অনেক অবস্থাশালী পরিবারের সন্তানও এ শ্রম দিয়ে থাকে।

পড়াশুনা চলাকালিন এসময়ে অর্থ দিয়ে একটা আগামী ভবিষ্যৎ কে নষ্ট করতে এদের কোন কমতি নেই। এরা অত্যন্ত সজাগ সাংবাদিক দেখা মাত্রই পূর্বের পরিকল্পনা মোতাবেক এ শিশুগুলো ইশারার মাধ্যমে দুর বহু দুর হতেই সঠকে পড়ে নয়তো বা বলে “আমরা ঘুরেফিরে দেখছি। এদের নাই কোন তদারকি অবৈধ বলে নাই কোন দৃষ্টি জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে। এরা কিন্তু প্রতিদিন মারধর খায় তবে তা প্রকাশ করেনা।নাই কোন সংগঠন নাই কোন লাইফ ইন্সুইরেন্স।


  • 47
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button