আন্তর্জাতিক

ভারতে আবারও রেকর্ড সংক্রমণ, মৃত্যু ১৫ হাজার

  • 3
    Shares

প্রতিদিনের রেকর্ড সংক্রমণ ও শতশত প্রাণহানিতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছে দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভারত। চলমান অবস্থা অব্যহত থাকলে দেশটিতে করোনা মহামারি রূপ নিতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞরা। ইতিমধ্যে ভাইরাসটির শিকার হয়েছেন প্রায় পৌনে ৫ লাখ মানুষ। প্রাণ গেছে প্রায় ১৫ হাজার ভারতীয়র।

দেশটির কেন্দ্রিয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬ হাজার ৯২২ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। একদিনের নিরিখে যা সর্বাধিক। এতে করে আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ৭৩ হাজার ১০৫ জনে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যে ৬০ শতাংশই মহারাষ্ট্র, দিল্লি ও তামিলনাড়ুতে।

একইসময়ে প্রাণহানি ঘটেছে ৪১৮ জনের। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত ১৪ হাজার ৮৯৪ জনের মৃত্যু হল করোনায়। এর মধ্যে সাড়ে ছ’হাজারেরও বেশি শুধু মহারাষ্ট্রেই। দিল্লিতেও বাড়তে বাড়তে সংখ্যাটা দু’হাজার তিনশোর পেরিয়েছে। তৃতীয় স্থানে থাকা গুজরাটে মারা গেছেন ১ হাজার ৭৩৫ জন।

এছাড়া, তামিলনাড়ু (৮৬৬), উত্তরপ্রদেশ (৫৯৬), পশ্চিমবঙ্গ (৫৯১), মধ্যপ্রদেশেও (৫৩৪) প্রাণহানির সংখ্যা যথেষ্ট উদ্বেগের। এ ছাড়া শতাধিক মৃত্যুর তালিকায় রয়েছে রাজস্থান (৩৭৫), তেলঙ্গানা (২২৫), হরিয়ানা (১৮৮), কর্নাটক (১৬৪), অন্ধ্রপ্রদেশ (১২৪) ও পঞ্জাবের (১১৩) মতো রাজ্যগুলি।

আক্রান্ত ও মৃত্যু আশঙ্কাজনকহারে বাড়লেও সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যাটাও স্বস্তি দিচ্ছে ভারতকে। এখন দেশে সুস্থ হয়ে ওঠা সংখ্যা সক্রিয় করোনা আক্রান্তের চেয়ে বেশি। মোট আক্রান্তের অর্ধেকেরও বেশি ইতিমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ১২ জন বেঁচে ফিরেছেন। যা একদিনে সুস্থতার সংখ্যায় এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ। এ নিয়ে স্বাভাবিক জীবনের ফেরার সংখ্যা ২ লাখ ৭১ হাজার ৬৯৭ জনে পৌঁছেছে।

ভারতে গোড়া থেকেই করোনা সংক্রমণের শীর্ষে মহারাষ্ট্র। সেখানে মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৪২ হাজার ৯০০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় তিন হাজার ৮৯০ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন এ রাজ্যে। দিল্লিতেও প্রতিদিন উল্লেখযোগ্য হারে বাড়ছে সংক্রমণ। আক্রান্তের নিরিখে সম্প্রতি তামিলনাড়ুকে পেছনে ফেলে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে দেশের রাজধানী। সেখানে এখন পর্যন্ত ৭০ হাজার ৩৯০ জন করোনার শিকার হয়েছেন। তামিলনাড়ুতে ৬৭ হাজার ৪৬৮ জন। চতুর্থ স্থানে থাকা গুজরাটে মোট আক্রান্ত ২৮ হাজার ৯৪৩ জন।

করোনা সংক্রমণের হিসাবে এরপর রয়েছে উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান, পশ্চিমবঙ্গ, মধ্যপ্রদেশ, হরিয়ানা, অন্ধ্রপ্রদেশ ও কর্নাটক। এই সব রাজ্যগুলি ১০ হাজারের গণ্ডি পার করে এগিয়ে চলেছে। উত্তরপ্রদেশ (১৯ হাজার ৫৫৭), রাজস্থান (১৬ হাজার ৯), পশ্চিমবঙ্গ (১৫ হাজার ১৭৩), মধ্যপ্রদেশ (১২ হাজার ৪৪৮), হরিয়ানা (১২ হাজার ১০), তেলঙ্গানা (১০ হাজার ৪৪৪), অন্ধ্রপ্রদেশ (১০ হাজার ৩৩১) ও কর্নাটকে (১০ হাজার ১১৮) জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

এরপর ক্রমান্বয়ে রয়েছে বিহার (৮ হাজার ২০৯), জম্মু ও কাশ্মীর (৬ হাজার ৪২২), অসম (৬ হাজার ১৯৮), ওড়িশা (৫ হাজার ৭৫২), পঞ্জাব (৪ হাজার ৬২৭), কেরল (৩ হাজার ৬০৩)-র মতো রাজ্যগুলে।


  • 3
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button