দেশজুড়ে

দুর্গাপুরে করোনার উপসর্গ নিয়ে পান ব্যবসায়ীর মৃত্যু

  • 71
    Shares

শাহীন আলম, দূর্গাপুর (রাজশাহী) প্রতিনিধি: রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার বেলঘরিয়া গ্রামে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে ইয়াদুল ইসলাম (৫০) নামের এক ব্যক্তি মারা গেছেন। মঙ্গলবার বিকেল চারটার দিকে তিনি নিজ বাড়িতেই মারা যান। ইয়াদুল ইসলাম বেলঘরিয়া গ্রামের মধ্যপাড়ার মৃত আহাদ সাজীর পুত্র। তিনি পেশায় পান ব্যবসায়ী ছিলেন। এছাড়া আগে থেকেই শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, গত ১৫ দিন ধরে সর্দি, জ্বর ও কাশি নিয়ে অসুস্থ হয়ে নিজ বাড়িতেই ছিলেন ইয়াদুল ইসলাম। কিন্তু পরিবারের লোকজন বিষয়টি কাউকে না জানিয়ে বাড়িতেই সর্দি জ্বরের ওষুধ খাওয়াচ্ছিলেন। এছাড়া আগে থেকেই শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন তিনি। মঙ্গলবার বিকেল চারটার দিকে ইয়াদুল নিজ বাড়িতেই মারা যান। ইয়াদুল পেশায় পান ব্যবসায়ী ছিলেন। আর্থিকভাবে অসচ্ছল হওয়ায় এই করোনা কালেও উপজেলার বিভিন্ন বাজারে পান বিক্রি করে বেড়াতেন তিনি।

এছাড়া তার ছোট ছেলে মিজান মাছবাহী ট্রাকে শ্রমিক হিসেবে প্রায় ঢাকায় যাতায়াত করতো। পরিবারের লোকজন ও প্রতিবেশীদের ধারণা ইয়াদুল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন। তবে অসুস্থতার খবরটি গোপন রাখায় তার নমূনা সংগ্রহ করতে পারেনি উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আসাদুজ্জামান জানান, এ ধরনের খবর তিনি শুনেননি। তবে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনে মৃত ব্যাক্তির নমূনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে।

পানানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজাহার আলী খান জানান, খবর পেয়ে তিনি মৃত ইয়াদুলের বাড়িতে গিয়েছিলেন। ইয়াদুলের আগে থেকেই শ্বাসকষ্ট ছিলো। এছাড়াও সে স্ট্রোকের রোগী ছিলেন।

তিনি আরো জানান, নমূনা পরীক্ষা না করা পর্যন্ত নিশ্চিত হওয়া যাবে না ইয়াদুল করোনা আক্রান্ত ছিলেন, নাকি ছিলেন না।


  • 71
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button