ভোর ৫:০৩ শনিবার ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

শাজজালালে ঈদের দিনে অভ্যন্তরীণ রুটে ছিল ঘরমুখো যাত্রীদের প্রচন্ড চাপ ও উপচেপড়া ভীড়

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : জুন ১৬, ২০১৮ , ৯:৫০ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : ঢাকা
পোস্টটি শেয়ার করুন

এস.এম.মনির হোসেন জীবন, বিমানবন্দর থেকে ফিরে ॥ আজ শনিবার পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন পরিবার ও প্রিয়জনের সাথে ঈদ উদযাপন করতে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছুটে গেছেন রাজধানীবাসী। ঢাকা হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ঈদের দিনে অভ্যন্তরীণ রুটে ঘরমুখো মানুষের প্রচন্ড চাপ এবং যাত্রীদের উপচেপড়া ভীড় ছিল। তবে, সেখানকার আন্তর্জাতিক টার্মিনালের চেয়ে বেশি ব্যস্ততা ও ভীড় দেখা গেছে অভ্যন্তরীণ টার্মিনালে।

জানা গেছে, সড়কপথে যানজটের ভোগান্তি এড়াতে ঈদকে সামনে রেখে যাত্রীদের আগ্রহ সব চেয়ে বেশি ছিল আকাশপথে। ঈদের দিনেও আত্মীয়স্বজন ও বন্ধুবান্ধবের কাছে দ্রুত যেতে বিমান ছিল তাদের একমাত্র যাতাযাতের ভরসা। বিমান যাত্রীদের চাহিদা থাকায় দেশি এয়ারলাইন্সগুলো পরিচালনা করেছে নিজ নিজ অতিরিক্ত ফ্লাইট। দেশে চারটি এয়ারলাইন্স ঢাকা থেকে সাতটি অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করে। রুটগুলো হলো- চট্টগ্রাম, সিলেট, কক্সবাজার, যশোর, বরিশাল, রাজশাহী ও সৈয়দপুর।

এদিকে, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ ও জনসংযোগ কর্মকর্তা শাকিল মেরাজ আজ জানান, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স অভ্যন্তরীণ সব রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করে। ঈদের দিন সাতটি রুটে তাদের সাতটি ফ্লাইট রয়েছে।, প্রায় সব ফ্লাইটেই ৮০ থেকে ৯০ শতাংশ যাত্রী ছিল। ঈদের দিন বিকেল ৩টা পর্যন্ত ঢাকা ছেড়েছে তাদের চারটি ফ্লাইট। ছেড়ে যাওয়া বিমানগুলো যাত্রীর সংখ্যা ছিল বেশি।

এদিকে, ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স এর জিএম মার্কেটিং (পিআর) মো: কামরুল ইসলাম আজ জানান, ঈদের দিন আজ শনিবার বিকাল ৪টার পর সৈয়দপুর, যশোর ও চট্টগ্রামে তাদের চারটি ফ্লাইট ঢাকা ছেড়ে গেছে। এগুলোতে যাত্রী ছিল প্রায় ৫০ শতাংশ।

নভোএয়ার এলাইরলাইন্স কর্তৃপক্ষ জানান, এবারের ঈদে তাদের ৬টি রুটে ঢাকা চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, সিলেট, রাজশাহী, যশোর ও সৈয়দপুরে ফ্লাইট পরিচালনা করেছেন তারা। দেশের বিভিন্ন গন্তব্যে ঈদের দিন তাদের ১২টি ফ্লাইট ঢাকা থেকে নিজ নিজ গন্তব্যে ছেড়ে গেছে। এসব বিমানগুলোতে যাত্রীর সংখ্যা ছিল বেশি বলে দাবি করেছে নভোএয়ার কর্তৃপক্ষ। তবে, ঢাকামুখী ফ্লাইটে সেই তুলনায় ঈদে যাত্রী সংখ্যা তুলনামূলক ভাবে কিছুটা কম ছিল বলে তারা জানিয়েছে।

এদিকে, আজ রিজেন্ট এয়ারওয়েজ কর্তৃপক্ষ জানান, ঢাকা-যশোর, সৈয়দপুর, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার রুটে তাদের চারটি ফ্লাইট পরিচালনা করেছেন এর মধ্যে সকাল ১০টা ও দুপুর দেড়টায় ঢাকা ছেড়েছে কক্সবাজারগামী ফ্লাইট। সন্ধ্যা ৭টা ও রাত ৯টায় চট্টগ্রামগামী ফ্লাইট ছেড়ে যাবে। তাদের প্রায় সবগুলো বিমানে প্রচুর যাত্রী রয়েছে।

এদিকে, রাজধানী থেকে ঈদের দিন যেমন দেশের বিভিন্ন গন্তব্যে মানুষ যাচ্ছেন, তেমনই অনেকেই প্রবাসিরা বিদেশ থেকে বাংলাদেশে ফিরছেন। দেরিতে হলেও ঈদের দিন তাদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে।

জানা গেছে, চট্টগ্রামে যাওয়ার জন্য আজ বিমানবন্দরে টিকিট কিনতে এসেছিলেন জয়নাল আবেদীন ও আলী মহসীন নামে দুই যাত্রী। তারা জানান, মা-বাবা চট্টগ্রামে যাবেন। দীর্ঘ সময় বাসে বসে থাকা তাদের জন্য কষ্টের। তাই বিমানের টিকিট নিতে বিমানবন্দরে এসেছিলাম। শেষ মুহূর্তে এসেও তিনি টিকিট পেয়েছেন।

বিমানবন্দর আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) এর সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মিডিয়া তারকি আহমেদ আজ জানান, আজ শনিবার ঈদুল ফিতরের দিনে ঢাকা বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের চাপ তেমন ছিলনা। বিশেষ করে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের প্রচুর চাপ ও যাত্রীদের ভীড় ছিল অনেক বেশি। তবে, যাত্রীদের ভোগান্তিতে পড়তে হয়নি। তাদের নিরাপত্তায় সবসময় সতর্ক অবস্থানে রয়েছে এপিবিএন পুলিশ।

Comments

comments