দেশজুড়ে

রাঙ্গাবালীতে মৎস্য অফিসের লোক পরিচয়ে দুই নারীর প্রতারণা


রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় মৎস্য অফিসে কর্মরত থাকার ভুয়া পরিচয় দিয়ে দুই নারীর প্রতারণা করার অভিযোগ উঠেছে। জেলেদের অভিযোগ, মৎস্যকার্ড ও নানা সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে উপজেলার ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের কোড়ালিয়া গ্রামের জেলেদের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে ওই দুই নারী।

এ ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার দুপুর ১২ টায় কোড়ালিয়া বাজারে মানববন্ধন কর্মসূচি করেছে জেলেরা। ঘন্ট্যাবাপী এ কর্মসূচিতে প্রতারণার শিকার জেলে ও পরিবার সদস্যসহ দুই শতাধিক লোক অংশ নেন। তাদের অভিযোগ, মঙ্গলবার দিনভর কোড়ালিয়া গ্রামে মৎস্য অফিসের লোক পরিচয়ে ঘুরে ঘুরে দুই নারী জেলেদের কাছ থেকে অর্থ আদায় করেছেন। জেলেপ্রতি তারা ৩০০-৫০০ টাকা তুলেছেন। জেলেকার্ড ও চাল-ডাল দেওয়ার কথা বলে এ টাকা আদায় করেন তারা।

ওই কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন, কোড়ালিয়া গ্রামের জেলে খোকা মাঝি, রবিদুল ইসলাম, রাজু, কাওসার ও সুমন প্রমুখ। বক্তব্যে তারা বলেন, সার্ভে করার নামে মধ্য বয়সী এক নারীর সঙ্গে এক কিশোরী এসে ছবি তুলে জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি নিয়ে জেলেদের কাছ থেকে নানা প্রলোভন দেখিয়ে টাকা আদায় করে। বিষয়টি সন্দেহ হলে কয়েকজন জেলে মৎস্য অফিসে যোগাযোগ করে। কিন্তু মৎস্য অফিস থেকে জানানো হয়Ñওই দুই নারী তাদের অফিসের স্টাফ নন। মাঠপর্যায় কে বা কারা টাকা আদায় করছেন তা মৎস্য অফিস জানেন না। এরপরই জেলেরা বুঝতে পারেন, তারা প্রতারিত হয়েছেন। তাই মানববন্ধন কর্মসূচির মাধ্যমে প্রতারকদের আইনের আওতায় এনে বিচার দাবি করেন প্রতারণার শিকার জেলেরা।

এ ব্যাপারে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম বাবুল বলেন, ‘কে বা কারা আমাদের অফিসের ভুয়া স্টাফ পরিচয় দিয়ে টাকা তুলেছে বলে জেলেরা দাবি করছে, তা আমরা জানি না। এবিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button