জাতীয়

লেখাপড়ার পাশাপাশি জাতির ইতিহাস সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা রাখতে হবে:  হানিফ


কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ১০ তলা বিশিষ্ট দুটি আবাসিক হলের ভিত্তি প্রস্থরের শুভ উদ্ধোধন অনুষ্ঠিত। বুধবার ১৩ অক্টোবর সকালে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় উন্নয়ন (৩য় পর্যায়)-১ম সংশোধীত” শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ১০ তলা ১০০০ সিট বিশিষ্ট দুটি আবাসিক হলের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি।

উদ্ধোনের আগে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে হানিফ বলেন, বাংলাদেশ আজ পৃথিবীর বুকে উন্নয়নের রোল মডেল। দেশের এমন কোন অংশ নেই যেখানে উন্নয়নের ছোয়া লাগে নাই। পাশাপাশি দেশের মেগা প্রকল্পের কাজগুলো দ্রুত শেষের পথে। বাংলাদেশ আজ বিশ্বের মধ্যে মাথা উচু করে দাড়িয়েছে। আর এটি সম্ভব হয়েছে জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেশ পরিচালনায় বলিষ্ঠ নেতৃত্বে ও সুশাসনের কারনে। তিনি বলেন, যারা দেশের স্বাধীনতাই বিশ্বাস করে না তারা দেশের উন্নয়ন নিয়ে অযথা ভিত্তিহীন সমালোচনা করে। তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর সেই বিখ্যাত উক্তি’ সোনার বাংলা গড়তে হলে সোনার মানুষ দরকার। আর এই সোনার মানূষ গড়তে পারে একমাত্র শিক্ষক। তাই বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ব্যবস্থার উপর বেশি গুরুত্ব দিয়েছিলেন। তিনি বলেন, আমরা রক্ত ও জীবন দিয়ে কিনেছি এই বাংলা। তাই দেশকে উন্নয়নের চরম শিখরে পৌছানোর জন্য জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।

হানিফ আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ব্যবস্থার প্রতি গুরুত্বারোপ করেছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সবথেকে বড় বিদ্যাপিঠ৷ এখান থেকেই নিজেকে নিজের ভাগ্য গড়ে নিতে হবে। শিক্ষাব্যবস্থা ধ্বংস হয়ে গেলে পুরো জাতি ধ্বংস হয়ে যায়। সকলকে গোজামিলের শিক্ষায় না প্রকৃত শিক্ষায় দীক্ষিত হতে হবে। শিক্ষার পাশপাশি আমাদেরকে আমাদের মূল শিকড় সম্পর্কে জ্ঞান থাকতে হবে। আমাদের দেশ তথা জাতির ইতিহাস সম্পর্কে আমাদেরকে সুস্পষ্ট ধারণা রাখতে হবে। রক্ত দিয়ে জীবন দিয়ে কেনা আমাদের এই বাংলাদেশ সম্পর্কে আমাদেরকে জানতে হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, আমি এতদিন শূণ্য বাগানে মালির কাজ করছিলাম। আস্তে আস্তে শূণ্য বাগানে ফল-ফুল ধরতে শুরু করেছে। তিনি আশা প্রকাশ করেন আগামী দুই বছরের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেগা প্রকল্পের কাজগুলো শেষ হবে। বিশেষ অতিথি ছিলেন, কুষ্টিয়া-৪ আসনের সাংসদ ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মাহবুবুর রহমান, ট্রেজারার প্রফেসর ড. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া। আলোচনা সভায় অংশ গ্রহনের আগে ক্যাম্পাসে এসে প্রথমেই কুষ্টিয়া-৩ আসনের এমপি এবং কুষ্টিয়া উন্নয়নের রুপকার মাহবুবউল আলম হানিফ বিশ্ববিদ্যালয়ের মেইন গেটে অবস্থিত মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব ম্যুরালে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলী নিবেদন করেণ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রধান অতিথিকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। শুরুতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপর নির্মিত উন্নয়নের একটি সংক্ষিপ্ত ভিজ্যুয়াল ট্যুর প্রদর্শন করা করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রধান প্রকৌশলী(ভারঃ) মুন্সী শহীদ উদ্দিন মোঃ তারেক ও পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগের পরিচালক(ভারঃ) এইচ.এম আলী হাসান।

এদিকে আবাসিক হলের ভিত্তি প্রস্তর ও ক্যাম্পাসে বৃক্ষ রোপন করেন এমপি হানিফ। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, কুষ্টিয়া সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাধন কুমার বিশ্বাস, প্রক্টর প্রফেসর ড. মোহাঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, পরিবহন প্রশাসক প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ট্রেজারার প্রফেসর ড. সেলিম তোহা, প্রফেসর ড. মাহবুবুল আরফিন, রেজিস্ট্রার(ভারঃ) মু. আতাউর রহমান, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক(ভারঃ) এ.কে. আজাদ লাবলু, কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি শামসুল ইসলাস জোহা, সাধারণ সম্পাদক ও আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ফেডারেশনের মহাসচিব মীর মোর্শেদুর রহমান, কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী ফারুকউজ্জামান, শেখ হাসান মেহেদী, সাংগঠনিক সম্পাদক আমজাদ হোসেন রাজু, মাযহারুল আলম সুমন সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল স্তরের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কমচারীবৃন্দ এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ইবি শাখার নেতাকর্মীরা।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button