দেশজুড়ে

উলিপুরে নৌকা ডুবির ঘটনায় একজনের মরদেহ উদ্ধার


উলিপুর (কুড়িগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা: কুড়িগ্রামের উলিপুরে ব্রহ্মপুত্র নদে ঝড়ের কবলে পড়ে নৌকা ডুবির ঘটনায় সুলতান মিয়া (৪৪) নামের একজনের মরদেহ উদ্ধার করেছেন স্থানীয়রা। নিখোঁজের একদিন পর শনিবার (০৯ মে) সকাল ৯টার দিকে ডুবে যাওয়া স্থানের অদূরে ভাটির চরে তার মরদেহ দেখতে পান স্থানীয়রা। ওই ব্যক্তি রংপুর জেলার বদরগঞ্জ উপজেলার মধ্যপাড়া গ্রামের কাচুয়া শেখের পুত্র। এ ঘটনায় এখনো নিখোঁজ রয়েছেন তার মেয়ে শিরিনা খাতুন।

জানা গেছে, উপজেলার বেগমগঞ্জ ইউনিয়নের মোল্লরহাট ঘাট থেকে বৃহস্পতিবার সুলতান মিয়া তার স্ত্রী জোবেদা বেগম (২৯), কন্যা শিরিনা খাতুন (১৩) সহ পরিবারের ৬ সদস্যকে নিয়ে স্থানীয় নৌকার মাঝি শাহ্ আলম মিয়ার নৌকায় সাহেবের আলগা ইউনিয়নের কাজিয়ার চর গ্রামের শ্বশুর আজিজ মোল্লার বাড়িতে দাওয়াত খেতে রওনা দেন। নৌকাটি ওই দিন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ব্রহ্মপুত্র নদের ফকিরের চর ও মশালের চরের মাঝামাঝি পৌঁছিলে হঠাৎ কাল বৈশাখি ঝড় উঠায় নৌকাটি ডুবে যায়।

এসময় নৌকায় থাকা ১০ যাত্রির মধ্যে ৮ জনকে অপর একটি মাছ ধরার নৌকা উদ্ধার করলেও সুলতান মিয়া ও তার কন্যা শিরিনা খাতুন নিখোঁজ হয়। নিখোঁজের একদিন পর শনিবার সকালে ডুবে যাওয়া স্থানের অদূরে ভাটির চর থেকে সুলতান মিয়ার মরদেহ উদ্ধার করেন স্থানীয়রা। এ ঘটনায় এখনো নিখোঁজ রয়েছে তার মেয়ে শিরিনা খাতুন।

সাহেবের আলগা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক একজনের মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আজ (শনিবার) সকালে ব্রহ্মপুত্র নদে নৌকা ডুবিতে নিখোঁজ সুলতান মিয়ার মরদহে ভাটির চরে দেখতে পান স্থানীয়রা। পরে তার লাশ উদ্ধার করে পরিবারের লোকজনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তার নিখোঁজ কন্যা শিরিনাকেও এলাকার লোকজন উদ্ধারের চেষ্টা করছেন।

উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোয়াজ্জেম হোসেন একজনের মরদেহ উদ্ধারের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button