খুলনায় চিকিৎসকদের কর্মবিরতি ৭২ ঘন্টা স্থগিত, সদর থানার ওসির প্রত্যাহার দাবী

0
5

খুলনা প্রতিনিধি : খুলনা মহানগরীর রাইসা ক্লিনিকের মালিক ডাঃ আব্দুর রকিব খান হত্যার প্রতিবাদে ডাকা চিৎসকদের কর্মবিরতি শর্তসাপেক্ষে ৭২ ঘন্টা স্থগিত করা হয়েছে। ১৮ জুন বৃহস্পতিবার দুপুরে খুলনা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানানো হয়েছে। বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশেন (বিএমএ) খুলনা জেলা শাখা এই প্রেস ব্রিফিং’র আয়োজন করে।

প্রসঙ্গত , এক প্রসূতির মৃত্যুর ঘটনায় তার স্বজনদের হামলায় নিহত হন ডাঃ আব্দুর রকিব খান। এঘটনার প্রতিবাদে বুধবার বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে কর্মবিরতির ঘোষণা দেন চিকিৎসক নেতৃবৃন্দ। আজ দুপুর দেড়টায় প্রেসবিফ্রিং করে তারা শর্তসাপেক্ষে আগামী ৭২ ঘন্টার জন্য তাদের কর্মসূচি প্রত্যাহার করে নেন। এই সময়ের মধ্যে খুলনা সদর থানার ওসিকে প্রত্যাহার, আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার ও দ্রুত বিচার আইনে মামলার আসামীদের শাস্তির দাবী জানানো হয়। অনথ্যায় তারা পুনরায় নতুন করে আন্দোলন শুরু করবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়।

খুলনা বিএমএ’র সভাপতি ডাঃ শেখ বাহারুল আলম বলেন , আমরা বাধ্য হয়ে কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছে। ডাঃ রকিবকে নির্মমভাবে হত্যার করা হলেও পুলিশ মামলা নিতে চাইনি। এমনকি নিহত ডাঃ রকিবের পরিবারের সাথে দুর্ব্যবহার করা হয়েছে। খুলনা সদর থানার ওসি সহযোগিতা না করে দুর্ব্যবহার করায় তাকে প্রত্যাহার করতে হবে। শুধু পাঁচজন নয় সকল আসামীকে গ্রেফতার করতে হবে এবং দ্রুত বিচার আইনে তাদের শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

খুলনা বিএমএ’র সাধারণ সম্পাদক ডাঃ মেহেদি নেওয়াজ বলেন, শর্ত সাপেক্ষে আমরা কর্মবিরতি আগামী ৭২ ঘন্টার জন্য প্রত্যাহার করে নিচ্ছি। এই সময়ের মধ্যে সকল আসামীদের গ্রেফতার করতে হবে এবং খুলনা সদর থানার ওসিকে প্রত্যাহার করে নিতে হবে। নতুবা এই ওসি থাকাকালীন এই মামলার বিচার সঠিকভাবে সম্ভব হবে না।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডাঃ রাশেদা সুলতানা বলেন, একজন রোগীর অন্তিমকালে তার পাশে থাকে শুধুমাত্র চিকিৎসক। চিকিৎসকই রোগীর আপনজন। কিন্তু সেই চিকিৎসককে যদি হামলা চালিয়ে হত্যা করা হয় সেটা মেনে নেওয়া যায় না। আইন কখনই নিজের হাতে তুলে নেওয়া ঠিক নয়।

এসময় বিএমএ’র প্রচার ও জনসংযোগ সম্পাদক ডাঃ সুমন রায়, নিহত ডাঃ রকিবের ভাই সাইফুল ইসলমহসহ চিকিৎসক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।