ভারতীয় রাজ্য দখলের ভয়ঙ্কর ‘৫ আঙ্গুল’ পরিকল্পনা নিয়েছে চীন!

0
5

দীর্ঘ দিন ধরে চলা শীতল যুদ্ধের পর এবার মুখোমুখি যুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে চীন-ভারত। চীন ভারতের ২৩ সেনা সদস্যকে হত্যা করার পর এই দুই পরাশক্তির মধ্যে যু্দ্ধাবস্থা বিরাজ করছে।পরমাণু শক্তিধর এই দুই দেশের মধ্যে যখন নতুন করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে, তখন নতুন করে চীনের ভয়ঙ্কর ‘৫ আঙ্গুল’ পরিকল্পনা আসনে এসেছে।

চীনের এই নতুন পরিকল্পনা সামনে এনেছে চীনের দখলকৃত তিব্বতের নির্বাসিত সরকার। চীনের আগ্রাসন দেখেই ভারতকে সতর্ক করলেন সেন্ট্রাল তিব্বত অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের প্রেসিডেন্ট লবসাং সাংগে৷

সিএনএন-নিউজ১৮-কে দেয়া এক্সক্লুসিভ সাক্ষাত্‍কারে তিনি ভারতকে সতর্ক করে দিয়ে বলেন, লাদাখ সীমান্তে চীনের কার্যকলাপ কিন্তু চীনের ‘ফাইভ ফিঙ্গার স্ট্র্যাটেজি’র অংশ৷ যে স্ট্র্যাটেজি শুরু করেছিলেন পিপলস রিপাবলিক অব চায়না’র প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মাও সে তুং৷

সাংগের দাবি, ‘যখন চীন তিব্বত দখল করল, মাও সে তুং-সহ অন্যান্য চীনের নেতারা বলেছিলেন, তিব্বত হল হাতের তালু, যা আমাদের দখল করতেই হত৷ এরপর আমরা বাকি ৫ আঙুল বাড়াবো৷ প্রথম আঙুলটি হল লাদাখ৷ বাকি ৪টি আঙুল হল নেপাল, ভুটান, সিকিম ও অরুণাচলপ্রদেশ৷’

২০১৭ সালের ডোকলাম স্ট্যান্ড অফ প্রসঙ্গ টেনে তিনি জানান, লাদাখের এই আগ্রাসনও সেই ফাইভ ফিঙ্গার স্ট্র্যাটেজিরই অংশ৷ তিব্বতের নেতারা ভারতকে গত ৬০ বছর ধরেই এটাই সতর্ক করে আসছেন৷ নেপাল, ভুটান ও অরুণাচলের উপরেও চাপ রয়েছে।১৯৬২ সালের যুদ্ধের পর থেকে এই প্রথম গোটা গালওয়ান ভ্যালির উপরে প্রথম নিজেদের আধিপত্য দাবি করল চীন৷ শান্তিপূর্ণ প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় পড়ল লাশের স্তূপ।