দেশজুড়ে

বৃষ্টি হলেই পঞ্চবটি-মুন্সীগঞ্জ-মোক্তারপুর সড়ক হয় মৃত্যুফাঁদ

  • 588
    Shares

আবু সাঈদ দেওয়ান সৌরভ, মুন্সীগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার পঞ্চবটি হতে মুন্সিগঞ্জ মুক্তারপুর ব্রিজ পর্যন্ত সড়কটি অল্প বৃষ্টি হলেই মরন ফাঁদে পরিণত হয়। নারায়ণগঞ্জের বিসিক শিল্প নগরী হতে মুন্সীগঞ্জের মোক্তারপুর বিজ্র পর্যন্ত শতাধিক ক্ষুদ্র ও বৃহৎ গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টির কারনে পানি জমে প্রায় প্রতিদিন এই সড়কের গর্তে পড়ে ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান কিংবা অন্যান্য গাড়ি উল্টে দীর্ঘ ৪ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়। যে কারনে পথযাত্রীদের মাত্র ২০ মিনিটের পথ অতিক্রম করতে সময় লাগে প্রায় ৪ থেকে ৫ ঘন্টা।

বর্ষা মৌসুম ছাড়াও যানজটের কারনে এই ৪ কিলোমিটার রাস্তা অতিক্রম করতে অনেক সময় ৫ থেকে ছয় ঘন্টা সময় লাগে। শুধু যানবাহনই নয় বিসিক শিল্প নগরীর কয়েক লাখ শ্রমিক ও পথচারীরা চলাচল করতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে প্রায় প্রতিনিয়ত। মুন্সীগঞ্জের অধিকাংশ লোকের এবং গামেন্টস ও সিমেন্ট ফেক্টরীর শ্রমিক এবং মালবাহী গাড়ি চলাচলের দীর্ঘ সংস্কারবিহীন এই সড়কটি যেন মৃত্যু ফাঁদে পরিণত হয়েছে। গত ডিসেম্বরে সেতু বিভাগ সড়কটিতে ৬ কিলোমিটার ফ্লাইওভার নির্মাণ করবে বলে আশ্বাস দিয়েছিল। কিন্তুু দীর্ঘ দিন অতিবাহিত হলেও সংস্কার মূলক তেমন কোন কাজও লক্ষ্য করা যায়নি।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ফতুল্লার পঞ্চবটি হতে মোক্তারপুর ব্রিজ পর্যন্ত সড়কটি প্রকৃতপক্ষে সেতু বিভাগের। দীর্ঘ প্রায় ৭-৮ বছর ধরে সংষ্কারবিহীন এই রাস্তায় সৃষ্টি হয়েছে বড় বড় কয়েকশ গর্ত। এছাড়া কয়েক দিনের বৃষ্টি ও ভারী বর্ষনের কারনে রাস্তার পিচ ও ইট ওঠে গিয়ে গর্তে কাঁদা জমে ক্ষুদ্র জলাশয়ের রুপ নিয়েছে। বৃষ্টির পানি জমলে বোঝার উপায় নেই যে কোথায় গর্ত আছে আর কোথায় নেই। প্রায়ই গর্তে পড়ে যানবাহন বিকল হচ্ছে ও সৃষ্টি হচ্ছে দীর্ঘ যানজটের এবং ঘটছে দুর্ঘটনা।

একটি পেশাক কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক এইচ আসলাম সানী আক্ষেপ করে জানান, দীর্ঘদিন ধরেই এ রাস্তার বেহাল দশা। এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করে প্রায় ৪ ল্খা পোশাক শ্রমিক ও মুন্সীগঞ্জ ও নারায়নগঞ্জের অসংখ্য মানুষ। এই শ্রমিক ও শিল্প প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে যে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জিত হয় তার বিনিময়ে এ রাস্তার পাশে বাগান হওয়া দরকার ছিল। কিন্তু দুর্ভাগ্য প্রায় প্রতিদিন কোন না কোন যানবাহন কিংবা শ্রমিক দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে।

এ বিষয়ে নারায়গঞ্জ ৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান জানান, সড়কের বেহাল দশা নিয়ে সেতু বিবাগের মন্ত্রী মহোদয়, চেয়ারম্যান ও সচিবের সাথে কথা বলে তাদের নজরে দেয়া হয়েছে। তারা কথা দিয়েছেন জরুরী ভিওিতে রাস্তাটি সংস্কারের ব্যবস্থা করা হবে। তিনি আরো বলেন, রাস্তাটি সড়কও জনপদ বিভাগের নয়, সেতু বিভাগের আওতায় পড়েছে। এখানে অদূর ভবিষৎতে ৬ কিলোমিটার মুন্সীগঞ্জ মোক্তারপুর সড়ক পর্যন্ত ফ্লাইওভার নির্মাণ কাজ শুরু হবে।


  • 588
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button