আন্তর্জাতিক

বিশ্বে আরও সাড়ে ৬ হাজার মৃত্যু, আক্রান্ত ৮২ লাখ


এক মহাদেশ থেকে অন্যটিতে জেঁকে বসছে করোনা। কিন্তু, কোনটি থেকেই পুরোপুরি বিদায় নিচ্ছে না। এমনকি নিয়ন্ত্রণে আসা উৎপত্তিস্থল চীনে দ্বিতীয় দফা আঘাত হানতে যাচ্ছে ভাইরাসটি। ইতিমধ্যেই বিশ্বের সাড়ে ৮২ লাখ মানুষ ভাইরাসটি বহন করছে। প্রাণহানির তালিকায় যোগ হয়েছে আও সাড়ে ৬ হাজারের বেশি মানুষ।

যার সবচেয়ে ভুক্তভোগী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, লাতিন আমেরিকার ব্রাজিল ও দক্ষিণ এশিয়ার ভারত। যদিও বেঁচে ফিরেছেন আক্রান্তদের প্রায় অর্ধেকই।

আজ বুধবার বাংলাদেশ সময় সকাল পর্যন্ত বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের তালিকায় যুক্ত হয়েছে বিশ্বের ১ লাখ ৪২ হাজার ৫৫৭ জন মানুষ। এতে করে সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে ৮২ লাখ ৫১ হাজার ২২৪ জনে দাঁড়িয়েছে। প্রাণ গেছে আরও ৬ হাজার ৫৯২ জনের। এ নিয়ে বিশ্বব্যাপী মৃতের সংখ্যা ৪ লাখ ৪৫ লাখ ১৮৮ জনে ঠেকেছে। আর সুস্থ হয়ে এখন পর্যন্ত হাসপাতাল ছেড়েছেন ৪৩ লাখ ৬ হাজারের বেশি মানুষ।

এর মধ্যে শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেই আক্রান্তের সংখ্যা ২২ লাখ ৮ হাজার ৪০০ জনে দাঁড়িয়েছে। প্রাণ গেছে ১ লাখ ১৯ হাজার ১৩২ জনের।

দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সংক্রমণ ও প্রাণহানির দেশ ব্রাজিলে গত একদিনে আবারও সর্বোচ্চ আক্রান্তের ঘটনা ঘটেছে। এতে করে সংক্রমণ বেড়ে ৯ লাখ ৮ হাজার ৭৩৪ জনে দাঁড়িয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ৪৫ হাজার ৪৫৬ জনে ঠেকেছে।

আক্রান্তের তালিকায় তিনে থাকা রাশিয়ায় সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে ৫ লাখ ৪৫ হাজার পেরিয়েছে। দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৭ হাজার ২৮৪ জনের মৃত্যু হয়েছে করোনায়।

সংক্রমণে চারে থাকা দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভারতে প্রাণহানিতে অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়েছে গেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে ২ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে করোনায়। এতে করে প্রাণহানি বেড়ে ১২ হাজার ছুই ছুঁই। আক্রান্ত ৩ লাখ ৫৪ হাজার ছাড়িয়েছে।

যুক্তরাজ্যে সংক্রমণ ২ লাখ ৯৮ হাজার পেরিয়েছে। মৃতের সংখ্যা ৪১ হাজার ৯৬৯ জনে দাঁড়িয়েছে।

নিয়ন্ত্রণে আসা স্পেনে করোনার ভুক্তভোগী ২ লাখ প্রায় ৯১ হাজার ৪০৮ মানুষ। এর মধ্যে প্রাণহানি ঘটেছে ২৭ হাজার ১৩৬ জনের। টানা আটদিন মৃত্যু শূন্য দেশটি।

ইউরোপে প্রথম আঘাত হানা ইতালিতে ২ লাখ সাড়ে ৩৭ হাজারের বেশি মানুষ করোনার শিকার। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩৪ হাজার ৪০৫ জনের।

আক্রান্ত ২ লাখ ৩৭ হাজার ছাপিয়ে গেছে লাতিন আমেরিকার দেশ পেরুতে। মৃত্যু ৭ হাজারের বেশি। ইরানে আবারও বেড়েছে সংক্রমণ। আক্রান্তর সংখ্যা ১ লাখ ৯২ হাজার ছাড়িয়েছে ইসলামি প্রজাতান্ত্রিক দেশটিতে। প্রাণ গেছে ৯ হাজারের বেশি মানুষের।

জার্মানিতে আক্রান্ত ১ লাখ ৮৮ হাজার ছাড়িয়েছে। এখন পর্যন্ত ইউরোপের দেশটিতে ৮ হাজার ৯১০ জনের মৃত্যু হয়েছে সেখানে। চিলিতে ১ লাখ ৮৪ হাজার পেরিয়েছে। এর মধ্যে প্রাণ গেছে ৩ হাজার ৩৮৩ জনের।

মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে লাতিন আমেরিকার আরেক দেশ মেক্সিকো। যেখানে সংক্রমণ ১ লাখ প্রায় ৫৫ হাজার। প্রাণহানি এখন পর্যন্ত ১৮ হাজার ৩১০ জন।

দক্ষিণ এশিয়ার আরেক ভুক্তভোগী পাকিস্তানে আক্রান্ত দেড় লাখ ছুঁই ছুঁই। মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৮৩৯ জনের।

আর বাংলাদেশে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দেয়া তথ্যমতে, গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত করোনার শিকার ৯৪ হাজার ৪৮১ জন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ২৬২ জনের। আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ৩৬ হাজার ২৬৪ জন।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button