দেশজুড়ে

খুলনায় করোনা রোগীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে ওয়ার্ড বয় আটক

  • 6
    Shares

খুলনা প্রতিনিধি : ১৬ জুন মঙ্গলবার খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন করোনা আক্রান্ত এক গৃহবধূ (২৫) রোগীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে অভিযুক্ত ওয়ার্ডবয় নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোনাডাঙ্গা মডেল থানা পুলিশ মহানগরীর হাফিজ নগর থেকে তাকে আটক করে। সোনাডাঙ্গা মডেল থানার ওসি (তদন্ত) রাধে শ্যাম সরকার নজরুলের আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সোমবার (১৫ জুন) রাতে মহিলা ওয়ার্ডে পুরুষকে দায়িত্ব দেওয়া ও ওয়ার্ড বয়কে আটক না করে ছেড়ে দেওয়ায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দায়িত্বহীনতা নিয়ে অনেকে প্রশ্ন তুলেছিলেন। অনেকে মন্তব্য করেন, যেখানে পৃথিবী কেঁপে উঠছে করোনার মতো মহামারীতে সেখানে করোনা রোগীর সেবার নামে এধরনের জঘন্য ও হীন মানষিকতা কি করে মনে আসে ভাবলে গাঁ শিউরে উঠে! উক্ত ওয়ার্ড বয়কে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়ার জোর দাবী জানানো হয় সোসাল মিডিয়ায়।

প্রসঙ্গত , করোনা আক্রান্ত হয়ে খুলনা মহানগরীর এক গৃহবধূ গত ৬ জুন খুলনা করোনা হাসপাতালে ভর্তি হন। গত ১৩ জুন রাতে এক ওয়ার্ডবয় পিপিই পরে উক্ত রোগীর কাছে গিয়ে কুপ্রস্তাব দেয়। একপর্যায়ে ওই রোগীর শরীরে স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে যৌন হয়রানি করে। বিষয়টি নার্সরা দেখে ফেলায় ওয়ার্ডবয় সরে যায়। এ ঘটনায় নজরুল নামের উক্ত ওয়ার্ড বয়কে সোমবার (১৫ জুন) চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুন্সী মো. রেজা সেকেন্দার। তিনি জানান, অভিযুক্ত নজরুল আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে নিযুক্ত কর্মচারী হিসেবে কর্মরত ছিল।

এদিকে বিষয়টি জানাজানির পর ওই হাসপাতালে ভর্তিকৃত করোনা আক্রান্ত অন্য রোগীরা অস্বস্তির মধ্যে রয়েছেন। একই সঙ্গে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েছেন।

হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানান, করোনা আক্রান্ত হয়ে মহানগরীর এক গৃহবধূ ৬ জুন খুলনা করোনা হাসপাতালে ভর্তি হন। ১৩ জুন রাতে ওয়ার্ডবয় নজরুল পিপিই পরে ওই রোগীর কাছে গিয়ে কুপ্রস্তাব দেয়। একপর্যায়ে ওই রোগীর শরীরে হাত দেয়। বিষয়টি নার্সরা দেখে ফেলায় ওয়ার্ডবয় সটকে পড়ে।

ভূক্তভোগী গৃহবধূর অভিযোগ, ‘হাসপাতালে ভ‌র্তির পরদিন থে‌কে নজরুল না‌মে এক ওয়ার্ড বয় কার‌ণে-অকার‌নে আমার কাছে এসে উপকার কর‌তে চাইতো। কিন্তু আমার প্রয়োজন না হওয়ায় সে নানান ধর‌ণের আপত্তিকর কথা বল‌তো। এরই মধ্যে ১৩জুন রাত ২ টার দি‌কে সে আমাকে যৌন হয়রানি ক‌রে। সঙ্গে সঙ্গে বিষয়টি আমি সবাইকে জানাই।’

খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুন্সী মো. রেজা সেকেন্দার জানান, রোগীর স্বজনদের কাছ থেকে মৌখিক অভিযোগ পেয়ে ওয়ার্ডবয় নজরুলকে চাকরি থেকে অব্যহতি দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে ওই রোগীকেও সোমবার ছাড়পত্র দিয়ে হোম আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। ভবিষ্যতে যাতে আর এ ধরণের ঘটনা না ঘটে সে জন্য সংশ্লিষ্টদের সতর্ক করা হয়েছে।


  • 6
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button