রাত ৩:৫৬ মঙ্গলবার ১৯শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং

দূতাবাসগুলোতে ভয়াবহ আর্থিক অনিয়ম

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : মে ১৭, ২০১৮ , ১১:২৫ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : জাতীয়
পোস্টটি শেয়ার করুন

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের দূতাবাসগুলোতে কর্মরত কূটনীতিক ও কর্মকর্তাদের আর্থিক অপচয়ের মহোৎসব ধরা পড়েছে মহা হিসাব-নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রকের নিরীক্ষা প্রতিবেদনে। মাত্র চার বছরে এমন ২০ কোটি টাকারও বেশি আর্থিক অনিয়মের অডিট আপত্তি ধরা পড়েছে এ প্রতিবেদনে। জাতীয় সংসদের সরকারি হিসাব কমিটির বৈঠকে এ অডিট আপত্তিগুলো নিয়ে আলোচনা শেষে তা নিষ্পত্তির সুপারিশ করেছে।বৈঠক সূত্র জানায়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ২০০৯-১০ থেকে ২০১০-১১ অর্থ বছরের হিসেবের উপর মহা হিসাব-নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রকের নিরীক্ষা প্রতিবেদনে ৯টি অডিট আপত্তির সংগে জড়িত সর্বমোট ৯ কোটি ৫৯ লাখ ১১ হাজার ৫৮৫ টাকার অডিট আপত্তি নিয়ে আলোচনা হয় এবং অডিট আপত্তিগুলো কমিটি কর্তৃক প্রদত্ত নির্দেশনার আলোকে নিষ্পত্তির সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে প্রাপ্য বৈদেশিক ভাতা মার্কিন ডলার এর পরিবর্তে ইউরোতে গ্রহণ করায় ১ কোটি ৬৭ লক্ষ ৯৫ হাজার ৫ শত ১৮ টাকা ক্ষতি মর্মে উত্থাপিত অডিট আপত্তির প্রেক্ষিতে কমিটির পক্ষ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত আপত্তিগুলো নিষ্পত্তি করার এবং অবশিষ্ট আপত্তি ডলারের বিনিময় হার অনুযায়ী পরিশোধ করার জন্য বলা হয়।

 

বৈঠকে অগ্রিম সমন্বয় না হওয়ায় ২ কোটি ১৩ লক্ষ ৭৯ হাজার ৭ শত ৫৭ টাকা ক্ষতি মর্মে উত্থাপিত অডিট আপত্তির প্রেক্ষিতে কমিটির পক্ষ থেকে যারা সমন্বয় করেছেন তাদের আপত্তির প্রমাণিক জমাদান সাপেক্ষে নিষ্পত্তি করা এবং যারা সমন্বয় করেননি তাদের নিকট থেকে অনধিক ৩ মাসের মধ্যে টাকা আদায় করে আপত্তিগুলো নিষ্পত্তির সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে চিকিৎসাবীমা প্রিমিয়াম বাবদ অনিয়মিতভাবে ব্যয় ৩ কোটি ৯ লক্ষ ৯ হাজার ৭শত ৫১ টাকা ক্ষতি মর্মে উত্থাপিত অডিট আপত্তির প্রেক্ষিতে কমিটির পক্ষ থেকে অনধিক মাসের মধ্যে স্বয়ংসম্পূর্ন প্রস্তাব অর্থ মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ ও অনুমোদনপূর্বক প্রমানক অডিট অফিসে জমাদান সাপেক্ষে আপত্তিগুলো নিষ্পত্তির সুপারিশ করা হয়।বৈঠকে বিমান ভাড়া অতিরিক্ত পরিশোধ করায় ১ কোটি ৩১ লক্ষ ৯২ হাজার ৫ শত ৫৯ টাকা ক্ষতি মর্মে উত্থাপিত অডিট আপত্তির প্রেক্ষিতে কমিটির পক্ষ থেকে যুক্তিসংগত বিমান ভাড়ার অতিরিক্ত টাকা জমাদান সাপেক্ষে আপত্তিগুলো অনধিক ৩ মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে প্রাপ্যতাবিহীন শিক্ষা ভাতা গ্রহণ করায় ৫৩ লক্ষ ৯০ হাজার ২ শত ৯৯ টাকা ক্ষতি মর্মে উত্থাপিত অডিট আপত্তির প্রেক্ষিতে কমিটির পক্ষ থেকে একই অনুশাসন দেয়া হয়।

 

 

বৈঠকে প্রাপ্য আপ্যায়ন ভাতা মার্কিন ডলার এর পরিবর্তে ইউরোতে গ্রহণ করায় ২৮ লক্ষ ৫৮ হাজার ৬শত ৬৯ টাকা ক্ষতি মর্মে উত্থাপিত অডিট আপত্তির প্রেক্ষিতে কমিটির পক্ষ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত আপত্তিগুলো নিষ্পত্তি করার এবং অবশিষ্ট আপত্তি ডলারের বিনিময় হার অনুযায়ী পরিশোধ করার সুপারিশ করা হয়।বৈঠকে বদলী হওয়ার পরেও খালি বাড়ি ভাড়া পরিশোধ করায় ২৭ লক্ষ ৬৩ হাজার ৪শত ৮৭ টাকা ক্ষতি মর্মে উত্থাপিত অডিট আপত্তির প্রেক্ষিতে কমিটির পক্ষ থেকে অনধিক ৭ দিনের মধ্যে আপত্তিকৃত সময়ে সংশ্লিষ্ট দূতাবাসের সাথে খালি বাড়ির চুক্তি থাকলে তা অডিট অফিসে প্রদর্শন করে আপত্তিগুলো নিষ্পত্তির সুপারিশ করা হয়। প্রাপ্যতাবিহীন প্রেষণ ভাতা গ্রহণ করায় ১৩ লক্ষ ২৯ হাজার ৬ শত ৫০ টাকা ক্ষতি মর্মে উত্থাপিত অডিট আপত্তির প্রেক্ষিতে কমিটির পক্ষ থেকে অনধিক ৩(তিন) মাসের মধ্যে প্রাপ্যতাবিহীন প্রেষণ ভাতার টাকা আদায়ের প্রমান জমাদান সাপেক্ষে আপত্তিগুলো নিষ্পত্তির সুপারিশ করা হয়।

 

 

বৈঠকে চিকিৎসা ব্যয়ের ১০% ব্যক্তিগতভাবে পরিশোধ না করে সরকারি তহবিল হতে পরিশোধ করায় ১২ লক্ষ ৯১ হাজার ৯ শত ৮৫ টাকা ক্ষতি মর্মে উত্থাপিত অডিট আপত্তির প্রেক্ষিতে কমিটির পক্ষ থেকে অনধিক ৩ মাসের মধ্যে বর্ণিত টাকা আদায়ের সুপারিশ করা হয়।কমিটির সভাপতি ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠক কমিটির সদস্য মো. আব্দুস শহীদ, পঞ্চানন বিশ্বাস, মো. আফসারুল আমীন, মো. শামসুল হক টুকু, মইন উদ্দীন খান বাদল এবং বেগম ওয়াসিকা আয়েশা খান অংশগ্রহণ করেন। বৈঠকের শুরুতে সরকারি হিসাব সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য এ,কে,এম মাঈদুল ইসলামের মৃত্যুতে কমিটি এক মিনিট দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে। বৈঠকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (দ্বিপাক্ষিক ও কনসুলার) কামরুল আহসান, ডেপুটি সিএন্ডএজি মোঃ জাকির হোসেন, অডিট অফিস এবং বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সংশ্লিষ্ট কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments