রাজধানী

ঢাকায় গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৩০ জনের মৃত্যু


গেল ২৪ ঘণ্টায় রাজধানী ঢাকা বিভাগে সর্বোচ্চ ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর পরের অবস্থানে রয়েছে চট্টগ্রাম বিভাগ। সেখানে ১৪ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। এছাড়াও একই সময়ে রাজশাহীতে ৪ জন, খুলনায় ৩ জন, বরিশালে একজন ও ময়মনসিংহে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

করোনাভাইরাসে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে হাসপাতালে ৩৪ জন ও বাড়িতে ১৮ জন মারা গেছেন। আর হাসপাতালে মৃত অবস্থায় এসেছেন একজন। এর মধ্যে পুরুষ ৪৭ জন ও নারী ৬ জন। মঙ্গলবার (১৬ জুন) অনলাইন ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা জানান, করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩ হাজার ৮৬২ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৯৪ হাজার ৪৮১ জনে। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৫৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ১ হাজার ২৬২ জনে। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ হাজার ২৩৭ জন করোনা রোগী। সব মিলিয়ে সুস্থ হয়েছেন ৩৪ হাজার ২৬৪ জন।

তিনি জানান, এদিন সর্বোচ্চ ১৭ হাজার ২১৪টি নমুনা পরীক্ষা করে ৩ হাজার ৮৬২ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯৪ হাজার ৪৮১ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৫৩ জন এবং এ পর্যন্ত মোট মারা গেছেন ১ হাজার ২৬২ জন। নতুন করে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ২৩৭ জন এবং এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৩৬ হাজার ২৩৪ জন।

ডা. নাসিমা জানান, বয়স বিশ্লেষণে ১১-২০ বছরের মধ্যে একজন, ২১-৩০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৯ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১৯ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১০ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৮ জন এবং ৮১-৯০ বছরের মধ্যে একজন মারা গেছেন।

শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৩৮ দশমিক ৩৮ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩৪ শতাংশ।

গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। বাংলাদেশে গত ৮ মার্চ প্রথম করোনা ভাইরাসের রোগী শনাক্ত হলেও প্রথম মৃত্যুর খবর আসে ১৮ মার্চ। দিন দিন করোনা রোগী শনাক্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ায় নড়েচড়ে বসে সরকার। ভাইরাসটি যেন ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য ২৬ মার্চ থেকে বন্ধ ঘোষণা করা হয় সব সরকারি-বেসরকারি অফিস। কয়েক দফা বাড়িয়ে এ ছুটি ৩০ মে পর্যন্ত করা হয়। ছুটি শেষে করোনার বর্তমান পরিস্থিতির মধ্যেই ৩১ মে থেকে দেশের সরকারি-বেসরকারি অফিস খুলে দেয়া হয়। তবে বন্ধ রাখা হয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।


এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button