সকাল ১১:৫২ রবিবার ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

“৫ জানুয়ারীর মত নির্বাচন হতে দেয়া হবে না” – জেবেল

নিউজ ডেস্ক | তরঙ্গ নিউজ .কম
আপডেট : জুলাই ২৭, ২০১৭ , ১০:৪৪ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : রাজনীতি
পোস্টটি শেয়ার করুন

বর্তমান সরকার আবারো ৫ জানুয়ারীর মত নির্বাচনের পায়তারা করছে। তারা সহজে নিরপেক্ষ নির্বাচন দিতে চাচ্ছে না উল্লেখ করে ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শীর্ষ নেতা ও বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গনি বলেছেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা গণতন্ত্রকে তারা ধ্বংসের দাড়প্রান্তে নিয়ে গেছে। সরকার দেশের গণতান্ত্রিক শক্তির ন্যায্যদাবীগুলো মেনে নিতে চাচ্ছে না।

বৃহস্পতিবার বিকালে ডিমলা হাউজ মিলনায়তনে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ ডিমলা উপজেলার বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

উপজেলা ন্যাপ আহ্বায়ক শাহ আজিজুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব মো. মোফাক্কারুল ইসলাম পেলব’র সঞ্চালনায় প্রধান বক্তা হিসাবে বক্তব্য রাখেন ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া। বক্তব্য রাখেন ন্যাপ নীলফামারী জেলা যুগ্ম আহ্বায়ক আবদুর রহমান, মো. ওয়াহেদুর রহমান, উপজেলা যুগ্ম আহ্বায়ক মোনাজ্জেম হোসেন দুদু, মুজিবুর রহমান বুলবুল, ন্যাপ নেতা আবদুল মান্নান, মোসাম্মদ আনোয়ারা বেগম মিতা, মোসাম্মদ মাজেদা থাতুস লাভলি, ইউনিয়ন ন্যাপ নেতা মহসিন আলী, হামিদুর রহমান, তৈয়বর রহমান, নূর নেবুল প্রিন্স, ছাইদুল ইসলাম, ছাইফুল ইসলাম, আবদুস সামাদ প্রমুখ।

জেবেল রহমান গনি বলেন, বর্তমান সরকারের অধিনে কোন সুষ্ঠু নির্বাচন আশা করা যায় না। তাই সহায়ক সরকার প্রতিষ্ঠার কোন বিকল্প নাই। তারা বিরোধী দলের এই সহায়ক সরকারের দাবি মেনে নেবে না। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে দুর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনতে  হবে। ভোটের অধিকার আদায়ে সরকারকে বাধ্য করতে হবে। জণগণকে সাথে নিয়ে নিয়মতান্ত্রিক ও গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে আন্দোলন করে সরকারকে নিরপেক্ষ নির্বাচন দিতে বাধ্য করা হবে।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেছেন, সরকারের মন্ত্রী ও নীতিনির্ধারকরা বলছে যে সংবিধানের বাইরে কিছু হবে না। এতে প্রতিয়মান হচ্ছে সরকার আবারো একদলীয় নির্বাচনের পথেই হাটছে।

তিনি বলেন, এই সংবিধান তো আপনারা তৈরি করেছেন। জনগণ তো আপনাদের কোনো ম্যান্ডেট দেয়নি। বিনা ভোটে নির্বাচিত হয়ে সংবিধান সংশোধন করে এই সংবিধান বানিয়েছেন। এই সংবিধান জনগণের ইচ্ছার প্রতিফলন নয়।

বর্তমান সরকারের বিরুদ্ধে দমন নীতির অভিযোগ করে গোলাম মোস্তফা বলেন, বর্তমানে সবচেয়ে বেশি দমন নীতি চলছে। সামনে নির্বাচন আসছে। তাই এই দমন নীতি। কিন্তু জনগণ বলছে যে ২০১৪ সালের মতো আর কোনো নির্বাচন তারা হতে দেবে না। ’৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে বুকের তাজা রক্ত দিয়ে আমরা দেশ স্বাধীন করেছি। এই দেশে আর কোনো একদলীয় নির্বাচন হতে দেয়া হবে না।

সভাপতির বক্তব্যে শাহ আজিজুল ইসলাম বলেছেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার ভিন্ন আঙ্গিকে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা কায়েম করতে চায়। আবারও বাকশাল ফিরিয়ে আনতে চায়। তারা গণতন্ত্রকে ধ্বংস করছে, জগদ্দল পাথরের মতো বুকে চেপে বসেছে।

Comments

comments