দেশজুড়ে

অবসরে গেলেন বীরগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ খয়রুল ইসলাম চৌধুরী

  • 208
    Shares

রনজিৎ সরকার রাজ, বীরগঞ্জ:  ২৯ বছরের কর্মজীবনের আজ রবিবার শেষ কর্মদিবস দায়িত্ব পালন করে অবসরে চলে গেলেন দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ খয়রুল ইসলাম চৌধুরী।১৯৯০ সালে বীরগঞ্জ সরকারি কলেজের প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন মোঃ খয়রুল ইসলাম চৌধুরী। পরবর্তীতে ২০০৪ সালে অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। তখন কলেজটিতে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল মাত্র ৩৭৫ জন। দায়িত্ব গ্রহণের পরপর একনিষ্টতা, দক্ষতা ও সৃজনশীলতা সাথে প্রতিষ্ঠানটিতে তিনি কাজ করে গেছেন।

কলেজটির উন্নয়ন, পড়া-লেখার মান, শিক্ষার ভালো পরিবেশে সহ বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রমে মনোনিবেশ করেন। এর ফলে বর্তমানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ৭০০০ হাজারে উন্নিত হয়।(শেষ কর্মদিবস পালন করছেন বিদায়ী বীরগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ খয়রুল ইসলাম চৌধুরী)দিনাজপুর -১আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি ও অধ্যক্ষ মোঃ খয়রুল ইসলাম চৌধুরী’র অক্লান্ত পরিশ্রমে ২০১০ সালে বীরগঞ্জ সরকারি কলেজে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে বাংলা,সমাজবিজ্ঞান,রাষ্টবিজ্ঞান, ব্যবস্থাপনা, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি (মোট ৫টি) বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু করেন। যেটি কলেজের মানকে আরো একধাপ এগিয়ে নিয়ে যায়।মোঃ খয়রুল ইসলাম চৌধুরী অধ্যক্ষ পালনের সময় শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখায় ঢাকার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পক্ষ হতে জাতীয় ভাবে শেরে বাংলা এ,কে,ফজলুল হক , হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দ্দী স্মৃতি পদক ও স্বাধীনতা পদক-২০১৭ অজর্ন করেন।

এছাড়াও তিনি বাংলাদেশ স্কাউটস দিনাজপুর জেলা রোভারের নির্বাহী কমিটির সহ-সভাপতি, দীর্ঘ ১২ বছর যাবত দিনাজপুর জেলা আইন শৃংখলা কমিটির সদস্য, বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সহ মরিচা হাইস্কুল ও দারুস সুন্নাহ দাখিল মাদ্রাসার উদ্যক্তা এবং আজীবন দাতা সদস্য ছিলেন।

বীরগঞ্জ উপজেলার ৯নং মরিচা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম কাবিরুল ইসলাম চৌধুরীর সুযোগ্য সন্তান অধ্যক্ষ মোঃ খয়রুল ইসলাম চৌধুীর বিদায় বেলায় সাংবাদিকদের জানান, কলেজটির যা কিছু উন্নয়ন এলাকার সন্তান হিসেবে আমি আমার দায়িত্ববোধ থেকে ভাল করার চেষ্টা করেছি। আগামীতে যারা কলেজ পরিচালনা করবে, তারা যেন উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত রাখেন এবং কলেজটির পড়া লেখার মান আরো উন্নত করেন।

বীরগঞ্জ সরকারি কলেজের শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মোঃ গোলাম মোস্তফা সাংবাদিকদের বলেন, আমরা অধ্যক্ষ মহোদয়কে শিক্ষক পরিষদের পক্ষ হতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিদায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু অধ্যক্ষ মহোদয় সকলের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে বিদায় অনুষ্ঠানটিকে নিরুৎসাহিত করেছেন। এবং বলেছেন পরিস্থিতি উন্নতি হলে সুবিধামত সময়ে আয়োজন করা যেতে পারে।উল্লেখ্য যে, বীরগঞ্জ সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করবেন অত্র কলেজের প্রাণী বিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ মকবুল হোসেন।


  • 208
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button