দেশজুড়ে

সরিষাবাড়ীতে পরকীয়া করতে গিয়ে ইউপি সদস্য জনতার হাতে ধরা

  • 37
    Shares

তৌকির আহাম্মেদ হাসু, সরিষাবাড়ী (জামালপু) প্রতিনিধিঃ জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে পরকীয়া করতে গিয়ে ইউপি তোজাম্মেল হক মুকুল(৪৫) গতকাল শুক্রবার(১২ জুন) রাত ১০ টার দিক স্থানীয় জনতার হাতে ধরা পড়ে এখন সরিষাবাড়ী থানা হাজতে রয়েছে বলে পুলিশ সুত্রে জানা গেছে। সরিষাবাড়ী উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের বগারপাড় গ্রামের মৃত আব্দুল কাদের মন্ডলের ছেলে।তিনি পোগলদিঘা ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত ইউপি সদস্য।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে,সরিষাবাড়ী উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের বগারপাড় গ্রামের মৃত আব্দুল কাদের মন্ডলের ছেলে পোগলদিঘা ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত ইউপি সদস্য তোজাম্মেল হক মুকুল(৪৫) একই গ্রামের মৃত ছাদেক আলী(গুদু’র} ছেলে আফজাল হাসান এর স্ত্রী চামেলি বেগমের সাথে পরকীয়া করতে যায়।

এ সময় চামেলী বেগমের স্বামী আফজাল হাসান তার মেয়ে বাড়ীতে ছিলেন।এ সুযোগে ইউপি তোজাম্মেল হক মুকুল(৪৫)গতকাল শুক্রবার(১২ জুন) রাত ১০ টার দিকে চামেলী বেগমের শোয়ার ঘরে প্রবেশ করে তারা খারাপ কাজে লিপ্ত হয়।

এ সময় বাড়ির লোকজন টের পেয়ে ঘরের দরজা আটকে দিয়ে স্থানীয় জনতাকে ডাকাডাকি করে।পরে স্থানীয় লোকজন সরিষাবাড়ী থানা পুলিশকে খবর দেন। খবর পেয়ে সরিষাবাড়ী থানার এস আই সাইফুল ইসলাম সহ পুলিশ সদস্যরা রাত ১ টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে ইউপি সদস্য তোজাম্মেল হক মুকুল ও চামেলী বেগমকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

এ ব্যাপারে পোগলদিঘা ইউপি চেয়ারম্যান শামস উদ্দিন কে মোবাইল ফোন করলে ফোন রিসিফ না করে কেটে দেন। অনেক চেষ্টা করেও মোবাইল ফোনে তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ আবু মো: ফজলুল করীম বলেন, ইউপি সদস্য তোজাম্মেল হক মুকুল ও চামেলী বেগমকে ঘটনাস্থল থেকে থানায় আনা হয়েছে।এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।


  • 37
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button