রাজনীতি

অন্ত:সারশূন্য বাজেটে স্বাস্থ্য খাতে একদম নজর নেই: ববি হাজ্জাজ

  • 275
    Shares

অন্তঃসারশূন্য বাজেটে স্বাস্থ্য খাত সংস্কারের সুনির্দিষ্ট কোন পদক্ষেপ নাই এবং সরকারের ঘোষিত বাজেটকে বাস্তবতা বিবর্জিত ও কাল্পনিক বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন-এনডিএম চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ। শনিবার (১৩ জুন) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে ববি হাজ্জাজ এসব কথা বলেন।

ববি হাজ্জাজ বলেন, এবারের বাজেটে যে প্রক্রিয়ায় কালো টাকা সাদা করার সুযোগ দেয়া হয়েছে, তাতে দুর্নীতি কে আইনী অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। যা সম্পূর্ণ বাস্তবতা-বিবর্জিত, উচ্চাকাঙ্ক্ষী একটি গতানুগতিক বাজেট। ৫লাখ ৬৮ হাজার কোটি টাকার বাজেট দেয়া হয়েছে যার মধ্যে এক লাখ ৯০ হাজার কোটি টাকার ঘাটতি রয়েছে।
বাজেটে ৮.২ প্রবৃদ্ধি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে যা গতবারের সমান কিন্তুএই প্রবৃদ্ধি কোথা থেকে কোন জাদুবলে আসবে কিভাবে আসবে যার সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য দেওয়া নেই।

জাতীয় সংসদে পেশকৃত বাজেট সম্পর্কে তিনি আরো বলেন, কোভিড-১৯ এর মত বিশ্বমহামারী মোকাবেলায় যে ধরণের গুরুত্ব দেয়া প্রয়োজন ছিল তার কোন লক্ষণ এতে দেখা যায়নি।কোভিড-১৯ মোকাবেলায় এ যাবত জরুরী ভিত্তিতে যা খরচ হয়েছে তা সম্পূরক বাজেটে দেখানো হয়েছে এবং আগামী অর্থবছরে এ ধরণের খরচ যা হতে পারে তার একটা আনুমানিক বরাদ্দ রাখা হয়েছে মাত্র। আগামী বছরে এ ধরণের মহামারী মোকাবেলায় কতটুকু সক্ষমতা অর্জন করা দরকার এবং দীর্ঘমেয়াদী সক্ষমতা অর্জন করতে যা করা হবে তার একটা সূচনা কার্যকলাপের বরাদ্দ রাখা উচিত ছিল এ বাজেটে। বিশেষ করে এ বাজেটে কিছু কেনাকাটার বরাদ্দ ও কর ছাড়ের বিষয় ছাড়া স্বাস্থ্যখাতের সক্ষমতা অর্জনের কোন পরিকল্পনাই চোখে পড়েনি।

অথচ কোভিড-১৯ এর মত মহামারী মোকাবেলার জন্য প্রান্তিক মানুষের স্বাস্থ্য ও সামাজিক সুরক্ষা নিশ্চিত করা ছিল সর্বোচ্চ গুরুত্বপূর্ণ।

করোনা মহামারী মোকাবেলা করতে আলাদা ভাবে ১০,০০০ কোটি টাকার বরাদ্দ রাখা হয়েছে – কিন্তু যে দেশে অল্প দিন আগেই এই সরকারেরই আরেক অর্থমন্ত্রী বলেন যে ৪,০০০ কোটি টাকা কোন টাকা না, সেখানে এই বিশাল দুর্যোগ মোকাবেলায় মাত্র ১০,০০০ কোটি টাকা বরাদ্দ? সবকিছু মিলিয়ে বলা যায় এ বাজেট জনমানুষের বাজেট না এ বাজেট জনবিরোধী বাজেট। সরকার এ বাজেটে কর্পোরেট ট্যাক্স কমিয়ে দিয়েছে অথচ যারা নিতান্তই মধ্যবিত্ত তাদের ট্যাক্স বাড়িয়ে দিয়েছে, এতে করে গরীব আরো গরীব হবে, ধনী আরও ধনী হবে সুতরাং আয় বৈষম্য প্রকট আকার ধারণ করবে।

কৃষিখাতে গুরুত্ব বৃদ্ধি করলেও তা করোনার ফলে বর্ধিত দারিদ্র ও বেকারত্ব মোকাবেলা করার জন্য যথেষ্ঠ কৌশল নির্ধারণ করা হয়নি। বিশাল অঙ্কের ঋণ নির্ভর বাজেট দুর্ভোগ বাড়াবে এবং বাস্তবতাকে বিবেচনায় না নিয়ে প্রবৃদ্ধি বেশি দেখানোর প্রবণতা বাজেটের বাস্তবায়নকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। বাজেটকে কল্যাণমুখী করতে শুধু আকার না বাড়িয়ে দুর্নীতি ও অপব্যবহার কমানোর তাগিদ দেন ববি হাজ্জাজ।

ববি হাজ্জাজ আশা প্রকাশ করেন, জাতীয় সংসদে এনডিএম উত্থাপিত বিষয়গুলো নিয়ে অর্থবহ আলোচনা হবে এবং মহামারী মোকাবেলা সহ বাজেট বাস্তবায়নের সক্ষমতা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বাড়ানোর জন্য প্রয়োজনীয় তাগিদ দেন।


  • 275
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button