আন্তর্জাতিক

নরওয়ে মসজিদে হামলাকারী যুবকের ২১ বছরের সাজা

  • 4
    Shares

মসজিদে বন্দুকহামলা চালানোর ঘটনায় অভিযুক্ত এক তরুণকে ২১ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে নরওয়ের একটি আদালত। যা নরওয়ে আইনে সব থেকে দীর্ঘতম শাস্তি। গত বছরের আগস্টে রাজধানী অসলোর পশ্চিমে বায়েরুম শহরে আল-নুর ইসলামিক সেন্টারে এই হামলার ঘটনাটি ঘটে। খবর বিবিসি

মসজিদটিতে ঢুকে প্রকাশ্যে গুলি চালান ২১ বছরের শ্বেতাঙ্গ যুবক ফিলিপ ম্যানশাউস। দেশটিতে এই হামলাকে উগ্র ডানপন্থী শ্বেতাঙ্গ সন্ত্রাসবাদের ঘটনা হিসেবে দেখা হয়।

ফিলিপ ম্যানশাউস নামের ওই ব্যক্তি আদালতে আরো ক্ষয়-ক্ষতি করতে না পারায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন৷ আদালতে তার এই মন্তব্য ‘তিনি কতোটা বিপজ্জনক তা প্রমাণ করে’ বলে প্রসিকিউটর জোহান ওভারবার্গ তার সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

গত বছরের ওই আক্রমণের আগে থেকেই ম্যানশাউস অভিবাসী ও মুসলিমবিরোধী মনোভাব ব্যক্ত করতেন। বিচার চলাকালীন তার মধ্যে কোনো অনুশোচনাও দেখা যায়নি। তবে আদালতে ম্যানশাউস তার অপরাধ স্বীকার করেন।

২২ বছরের ম্যানশাউস তার ১৭ বছরের সৎ-বোনকে অসলোর বেরাম শহরে তাদের বাড়িতে রাইফেল দিয়ে চারবার গুলি করে হত্যা করেন। পরে তিনি নিকটবর্তী এক মসজিদে চলে যান। যেখানে তিনজন মুসল্লি ঈদুল-আযহা উদযাপনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

এই ঘটনার তদন্তে পুলিশ জানতে পারে, নিউজিল্যান্ডে ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলার ঘটনা থেকে অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন ফিলিপ। গত বছর মার্চে ক্রাইস্টচার্চের ওই ঘটনায় ব্রেনটন ট্যারেন্ট নামে এক শ্বেতাঙ্গ সন্ত্রাসী ৫১ জন মুসল্লিকে গুলি করে হত্যা করেছিল।


  • 4
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button