কৃষকদের ভালোবাসায় ভাসছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তরিকুল ইসলাম

0
16

শাহীন আলম, দূর্গাপুর (রাজশাহী) প্রতিনিধি: বিধি ভেঙে পুকুর খননের হিড়িক পড়েছে রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলায়। এতে এক দিকে যেমন ফসলি জমি কমছে, তেমনি নিষ্কাষন পথ বন্ধ হয়ে পড়ায় জলাবদ্ধতায় ঘটছে ফসলহানি। প্রভাবভালীদের এই কান্ডে সর্বশান্ত হচ্ছেন এলাকার প্রান্তিক কৃষকরা তবে এসব কৃষক এখন স্বস্তিতে। অবৈধ পুকুর খনন বন্ধে চিরুনি অভিযান চালাচ্ছেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তরিকুল ইসলাম।

যেখানেই পুকুর খননেন খবর পাচ্ছেন তাৎক্ষনিক পৌঁছে যাচ্ছেন সেখানেই। পুকুর খননকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছেন। তার এই কাজে খুশি প্রান্তিক কৃষকরা। আর তাই সবসময় কৃতজ্ঞতায় ভাসিয়ে দিচ্ছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, দূর্গাপুর উপজেলায় ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে অবৈধ পুকুর খননের বেশি হিড়িক ছিল ৬নং মাড়িয়া ইউনিয়নে ও ১নং নওপাড়া ইউনিয়নে। গত কয়েক দিনের মধ্যে ৬নং মাড়িয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন জায়গায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে অবৈধ পুকুর খননে ব্যবহৃত ভেকু মেশিনের ব্যাটারি জব্দ এবং ভেকু মেশিন অকেজো করে দেয়া হয়েছে বলে জানা যায়।

এছাড়া ১নং নওপাড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন জায়গায় তিনি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে অবৈধ পুকুর খনন বন্ধ করে দেন এবং অবৈধ পুকুর খনন কারিদের জরিমানা সহ অবৈধ ভেকু মেশিনের ব্যাটারি জব্দ এবং ভেকু মেশিন অকেজো করে দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তরিকুল ইসলাম।

এছাড়া আরও জানা যায়, ৭নং জয়নগর ইউনিয়েনেও ঠিক একি রকম ভাবে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে অবৈধ ভেকু মেশিনের ব্যাটারি জব্দসহ অবৈধ ভেকু মেশিন অকেজো করে দেয়া হয়। আরও জানা যায়, ২নং কিশমত গনকৈড় ইউনিয়েনের কয়ামাজমপুর গ্রামে অবৈধ পুকুর খননে ঠিক একইভাবে তিনি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

দূর্গাপুর উপজেলার আব্দুল মান্নান নামের এক কৃষক জানান, আমরা গত দুই দিন আগে ফসলি জমিতে অবৈধভাবে পুকুর খননের তথ্য নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তরিকুল ইসলামকে জানালে তিনি সঙ্গে সঙ্গে এসে অবৈধ পুকুর খনন বন্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে পুকুর খননে ব্যবহৃত ভেকু মেশিনের ব্যাটারি সহ ভেকু মেশিন অকেজো করে দেন। কৃষকগণ ম্যাজিস্ট্রেটের এ অগ্রণী ভূমিকা পালন করাতে সন্তুষ্ট প্রকাশ করেন।

এবিষয়ে রাজশাহী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তরিকুল ইসলাম বলেন সরকারি আদেশ অমান্য করে যারা অবৈধ ভাবে পুকুর খনন করে তাদের আমরা বিভিন্ন ভাবে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জরিমানা ও ভেকু গাড়ি অকেজো করে থাকি এবং অবৈধ পুকুর খননের অভিযান অব্যহত থাকবে বলে তিনি জানান।