দেশজুড়ে

মোহনপুরে স্ত্রীকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক

  • 40
    Shares

রিপন আলী, রাজশাহী ব্যুরো: রাজশাহীর মোহনপুরে যৌতুকের দাবিতে এক গৃহবধূকে নির্যাতনের পর বালিশ চাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামীকে আটক করেছে মোহনপুর থানা পুলিশ।

গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টার দিকে মোহনপুর উপজেলার জাহানাবাদ ইউনিয়নের মোল্লাডাঙ্গী গ্রামে এ.ঘটনা ঘটে।নিহতের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে গৃহবধূর লাশটি উদ্ধার করে মোহনপুর থানা পুলিশ।

পারিবারিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, তিন বছর আগে যৌতুক দিয়ে বাগমারা উপজেলার ভবানীগন্জ পৌরসভার খাজাপাড়া গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে পাপড় বিক্রেতা মনিরুল ইসলামের সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ে হয় মোহনপুর উপজেলার জাহানাবাদ ইউনিয়নের মোল্লাডাঙ্গী গ্রামের প্রতিবন্ধি আয়নাল হক প্রামাণিকের কন্যার সাথে।

বিয়ের পর থেকে প্রায় আখি আক্তারকে যৌতুকের জন্য তার স্বামী মনিরুল ইসলাম নির্যাতন করতো।আখি আক্তার (২২)এর দেড় বছরের একটি শিশু কন্যা রয়েছে।যৌতুক এর জন্য স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে ঈদুল ফিতরের কয়েকদিন আগে বাবার বাড়িতে চলে আসেন আখি আক্তার।তখন থেকে আখি আক্তার তার বাবার বাড়িতেই থাকা শুরু করে।গত ৯ জুন মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে মনিরুল শ্বশুর বাড়ি এসে ভুল স্বীকার করে স্ত্রীকে নিয়ে রাত্রী যাপন করেন।এসময় তাদের কন্যা সন্তান সঙ্গেই ছিল।রাত ২ টার দিকে মিমের কান্না শুনে পরিবারের লোকজন গিয়ে দেখে ঘর বাইরে থেকে শিকল দেয়া ঘরে ঢুকে আখির মৃতদেহ পড়ে আছে।পাশে বসে শিশুটি কাঁদছে। মনিরুল পালিয়েছে।গৃহবধূর মৃত্যুর খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করেছে মোহনপুর থানা পুলিশ।

মোহনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি)মোস্তাক আহম্মেদ বলেন,ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে গৃহবধূকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করা হয়েছে।আসামি মনিরুল ইসলাম কে গ্রেফতার করা হয়েছে।


  • 40
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button