প্রবাস

সৌদিতে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ২৬৪ বাংলাদেশি

  • 5
    Shares

দীর্ঘদিন লকডাউন ও কারফিউ শিথিল হবার পর থেকে করোনা নতুন করে তাণ্ডব চালাচ্ছ সৌদি আরবে। সুস্থতার হার বেশি হলেও আক্রান্ত লাখ ছাড়িয়েছে। সে তুলনায় কম প্রাণহানি, যেখানে ২৬৪ বাংলাদেশিও রয়েছেন।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ হাজার ২৮৮ জনের দেহে মিলেছে করোনার সংক্রমণ। এতে করে আক্রান্ত বেড়ে ১ লাখ ৮ হাজার ৫৭১ জনে দাঁড়িয়েছে। প্রাণ গেছে আরও ৩৭ জনের। এ নিয়ে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিতে ৭৮৩ জনের মৃত্যু হয়েছে ভাইরাসটিতে। যদিও সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ৭৬ হাজার ১২৯ জন মানুষ।

দেশটিতে করোনায় এখন পর্যন্ত ২৬৪ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাস ও জেদ্দায় অবস্থিত বাংলাদেশ কনস্যুলেট। এদের মধ্যে জেদ্দায় ১৬৪ ও রিয়াদে ১শ জন। চিকিৎসাধীন রয়েছেন অন্তত ১১ হাজার বাংলাদেশি।

এদিকে প্রতিদিনেই করোনার এমন চিত্রে চলতি মাসের শেষভাগে এ বছর হজ আদৌ হবে কী-না তা নিয়ে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা। তবে এখন পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় কিংবা বিভাগ কোনো ঘোষণা দেয়নি। যদিও, এর আগে মুসলিমদের হজ মুলতবি করার অনুরোধ জানায় তারা।

তবে, সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে হজের পরিকল্পনা করা হচ্ছে বলে অন্য একটি সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে, গত শনিবার থেকে আগামী ২০ জুন পর্যন্ত মক্কার প্রবেশপথ জেদ্দার সকল মসজিদে নামাজ আদায় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। সেইসাথে পরিবর্তন করা হয়েছে কারফিউয়ের সময়। এখন থেকে প্রতিদিন সকাল ৬টা থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত ঘর থেকে বের হওয়া যাবে। এ সময়ের মধ্যেই সকল কাজ-কর্ম সম্পন্ন করতে বলা হয়েছে।

সেই সাথে জেদ্দা অঞ্চলের জন্য বিশেষ কিছু নির্দেশনাও জারি করেছে সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অফিস আদালতে, সরকারি-বেসরকারি সব জায়গায় কাজের জন্য উপস্থিত হওয়া যাবে না। হোটেল ক্যাফেতে অভ্যন্তরীণ সার্ভিস দেয়া বন্ধ থাকবে। কারফিউ চলাকালীন সময়ে এক শহর থেকে অন্য শহরে যাওয়া যাবে না। তবে অন্য সময়ে যেতে পারবে।

পাশাপাশি পাঁচ-ছয় জনের বেশি লোক জমায়েত হওয়া যাবে না, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলার পাশাপাশি বাধ্যতামূলক ব্যবহার করতে হবে মাস্ক। ইতিপূর্বে যে সকল প্রতিষ্ঠান/পেশার লোকজনকে মুভমেন্ট করতে অনুমতি দেওয়া হয়েছে তারা আগের মতো চলা ফেরা করতে পারবেন।

এছাড়া, সৌদি আরবের অন্যন্য এলাকার পরিস্থিতি বিবেচনা করে যেকোন সময় প্রয়োজনীয় নতুন নির্দেশনা দেয়া হতে পারে বলে জানিয়েছেন সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।


  • 5
    Shares

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

Back to top button